শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সততা- ইনাম আহমেদ চৌধুরী

0

শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সততা- ইনাম আহমেদ চৌধুরী

জুবায়ের তানভীর সিদ্দিকী কর্তৃক সংগ্রহিত ও পরিমার্জিত

শহীদ জিয়াউর রহমানের অবয়বে এক অকৃত্রিম খাঁটি মানুষ বিরাজ করত। আদর্শবান, নীতি-নিষ্ঠ, নিরহংকার জাতীয় স্বার্থে নিবেদিতপ্রাণ একজন বাংলাদেশী যার প্রথম ছিল বাংলাদেশ, শেষ ছিল বাংলাদেশ, চিন্তায় ও কর্মে সততা ছিল যার প্রথম কথা ও শেষ কথা। তাতে কোন ঘাটতি নেই, নেই কোন আপোস।

এই প্রসঙ্গে একটি ছোট অথচ তাৎপর্যপূর্ণ ঘটনা মনে পড়ছে। আমি তখন লন্ডনে বাংলাদেশ দূতাবাসে কর্মরত অর্থনৈতিক মন্ত্রী। প্রেসিডেন্ট জিয়া ব্রিটিশ সরকারের আমন্ত্রণে সরকারি সফরে সস্ত্রীক এসেছেন লন্ডনে। সেখানে তার ব্যস্ত কর্মসূচির মধ্যে একটি ছিল গিল্ড হলে বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত ব্রিটিশ বাণিজ্যিক ও বিনিয়োগ বিষয়ক নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিবর্গের এক সমাবেশ। প্রেসিডেন্ট জিয়া ভাষণ দেবেন তার পর প্রশ্নোত্তর। নির্দেশ মোতাবেক একটি খসড়া তৈরি করে সফর সঙ্গী জনাব শফিউর আজম, হাই কমিশনার দোহা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী অধ্যাপক শামসুল হককে দেখিয়ে তাদের পরামর্শ অনুযায়ী পরিমার্জিত করলাম।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বললেন — মিটিং-এ যাবার আগে প্রেসিডেন্টকে দেখিয়ে নিন। শরণাপন্ন হলাম প্রেসিডেন্টের সামরিক সচিব মেজর জেনারেল সাদেকুর রহমান চৌধুরীর। তিনি বললেন, “ইনাম ভাই, ফর্মালী দেওয়া যাবে না। সময় কম। তবে তার স্যুইটের পাশের রুমে বসে রাখার ব্যবস্থা করতে পারি। মহামান্য প্রেসিডেন্ট বেরুলেই তাঁর কাছে হাঁটতে হাঁটতে উপস্থাপন করা যেতে পারে। লিখিত ভাষণের পরে তিনি সম্ভবত স্বতঃপ্রবৃত্ত হয়ে মুখে কিছু বলবেন। গাড়িতে বসে আলাপ করা যেতে পারে।”

যাহোক — বসে আছি। হঠাৎ পাশের কক্ষ থেকে প্রেসিডেন্ট জিয়া এবং তাঁর স্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার কথোকোপথোনের একাংশ কানে এলো। সবাই জানেন, বিদেশে গেলে সচরাচর তারা কোনা কেনা-কাটা করতেন না। প্রয়োজন বোধে এক জোড়া মোজা সম্ভবত বেগম জিয়া কিনেছিলেন। বললেন, “এক জোড়া মোজার দাম দেশী টাকায় এক শতেরও বেশি। এই দামে মোজা কেনা যায়?” আমার আর কিছু কেনার নেই ভাগ্যিস। উত্তর এলো ‘এ’ দামে আমাদের কেনার দরকারও নেই, সামর্থ্যও নেই। গরিব দেশের নির্ধন প্রেসিডেন্ট। যখন দেশের মানুষের সঙ্গতি হবে, প্রেসিডেন্টেরও হবে। অপর দিকে সম্মতি সূচক নীরবতা।

স্তম্ভিত বিস্মিত চিত্ত আমি। সাদামাটা সততার কি আশ্চর্য সুন্দর নিদর্শন। এক মহান রাষ্ট্রনায়ক আর তার এক মহীয়ষী সহধর্মিণী। কালে এই মহিলাই আবির্ভূত হলেন দেশের রাজনৈতিক মঞ্চে দেশনেত্রী হিসেবে প্রয়াত স্বামীর সুযোগ্য উত্তরসূরি দেশের গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে নির্বাচিত প্রথম প্রধানমন্ত্রী – দেশের প্রথম মহিলা সরকার প্রধান, আর বর্তমানে বিরোধী দলসমূহের জননন্দিত নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া॥”

– ইনাম আহমেদ চৌধুরী / ভাবনায় বাংলাদেশ ॥ [ হাসি প্রকাশনী – মে, ২০০৯ । পৃ: ১৪৯ ]