নাটোরে আহাদ আলীর গণসংযোগে যুবলীগ নেতার গুলি

0

কেএম সবুজঃ নাটোরে আওয়ামী লীগের সাবেক ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ও সাবেক এমপি আহাদ আলী সরকার গণসংযোগে থানা যুবলীগের সহ-সম্পাদক মানিক পাশার নেতৃত্বে হামলা ও গুলিবর্ষনের ঘটনা ঘটৈছে। সোমবার বিকেলে নাটোর সদরের ফুলতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ ও র‌্যাব অভিযুক্ত থানা যুবলীগের সহ-সম্পাদক মানিক পাশা (২৭) ও তার সহযোগী শাহাদত হোসেন (২৬) কে আটক করেছে। এ সময় তাদের ব্যবহৃত দুইটি মোটর সাইকেলও আটক করা হয়। এ ঘটনায় এমপি আহাদ আলী সরকারের আহত কর্মী মিঠুনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানায়, সোমবার বিকেল ৫টার দিকে নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি সাবেক ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আহাদ আলী সরকার সদরের ফুলতলা এলাকায় গণসংযোগ করার জন্য গেলে সদর থানা যুবলীগের সহ-সম্পাদক মানিকের নেতৃত্বে বাঁধা দেয়া হয়।
পরে মানিক বাড়িতে ফিরে গিয়ে তিনটি মোটর সাইকেলে অন্য সহকর্মীদের নিয়ে এসে পাশের শিবদুর গ্রামের মোড়ে পুনরায় তাদের উপর হামলা চালায়। এসময় হামলাকারীরা ছয় রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষন করে। উত্তেজনা চলা অবস্থাতেই সন্ধ্যার পূর্ব মুহুর্তে নাটোরের এডিশনাল এসপি আবুল হাসনাত, বিপুল সংখ্যাক র‌্যাব ও পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে হামলাকারী সদর থানা যুবলীগের সহ-সম্পাদক মানিক ও তার সহযোগী শাহাদত হোসেনকে আটক করেছে অন্যরা মোটর সাইকেল ফেলে পালিয়ে গেছে। এ সময় তাদের ব্যবহৃত দুইটি মোটর সাইকেল আটক করা হয়। এছাড়া একটি ুগলির খোসা উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় এখনো কোন মামলা হয়নি। এ ব্যাপারে কোন কথা বলতে রাজি হননি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল হাসনাত।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি সাবেক ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আহাদ আলী সরকার বলেছেন, এটা সন্ত্রাসী হামলা, আমার নেতাকর্মীদের উপর সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়েছে এর চাইতে বেশি কিছু বলতে চাই না। আগামীকাল মঙ্গলবার সকালে তার বাড়িতে সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত কথা বলবেন তিনি।