১২ লাখ ভারতীয় অবৈধভাবে বাংলাদেশে ঘাপটি মেরে আছে:এরাই গুপ্তঘাতক

0

জিসাফো ডেস্কঃ ২০১৪ সালের মে মাসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী হলেন নরেন্দ্র মোদী। গুজরাটে দাঙ্গায় প্রায় ১৫০০ মুসলমান হত্যার জন্য দায়ী এই মোদি আওয়াজ তুলেছিল , অবৈধ বাংলাদেশীরাই নাকি ভারতের বিরাট সমস্যা! এরাই নাকি চাকরি বাকরি খানা-খাদ্য সব খেয়ে ফেলছে!

অথচ বাস্তবতা হচ্ছে ভিন্ন! ডিজিএফআইর হিসাবে, প্রায় ১২ লাখ ভারতীয় বাংলাদেশে অবৈধভাবে কাজ কর্ম করছে! এরাই বাংলাদেশের নিরাপত্তার জন্য বিরাট হুমকি!

আচ্ছা, হিন্দুস্তান নিজেদেরকে কি ভাবে? যে দেশের ৫৩% লোক এখনো রাস্তায় মলমুত্র ত্যাগ করে, তারা পশু শ্রেনী থেকে ঊঠতে পারেনি। ওদের মানুষ হতে অন্তত আরো ৫০ বছর লাগবে। লক্ষণীয়, ২০১৩ সালে বাংলাদেশের ৯৬% জনগন সেনিটেশনের আওতায় এসেছে। এটা হচ্ছে সভ্যতার মাপকাঠি।

বাংলাদেশের আশে পাশে ভারতের যে রাজ্যগুলি আছে, তারা বাংলাদেশের মানুষের জীবনযাত্রা, চাকচিক্য দেখে রীতিমত ঈর্শায় কাতর। ভারতের সমৃদ্ধশালি কোলকাতার স্বচ্ছল মানুষেরাও একসাথে পূর্ন একটা সিগারেট বা একচাপ চা খাওয়ার সাহস করে না। সেখানে বাংলাদেশের মানুষজন যে বিলাসী জীবন যাপন করে, যে উপায়-রোজগার, তা ভারতীয় এলাকাগুলির অন্তত ডাবল। তো, আমাদের নাগরিকরা দেশে ছেঢ়ে ওই ফকিরের দেশে কেনো যাবে থাকতে?

তবে হ্যা, এটা সত্য যে, স্বাধীনের আগে পরে কিছু হিন্দুরা ভয়ে ওই দেশে পালিয়ে গেছে। জানা যায়, সেখানে তারা বেশ মানবেতর জীবন যাপন করছে। এটা আমাদের কনসার্ন নয়, যারা তাদের ওখানে নিয়ে যায়, এবং আশ্রয় দেয়, এটা তাদের বিষয়। একই সমস্যা আমেরিকা কানাডার মত উন্নত দেশেও আছে। তবে বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় ও সামাজিক কোনো কারনে হিন্দুদেরকে দেশ ছাড়া করছে না। বাংলাদেশ থেকে এক পিস মুসলমান কি ভারতে গিয়ে থাকে? মনে রাখতে হবে, সেই পার্টিশনের সময় থেকে ভারতীয় মুহাজিদরদের আমরা বহন করে চলছি।

অন্যদিকে, এক শ্রেনীর স্বচ্ছল হিন্দুরা বাংলাদেশে উপার্জন করে মাসে মাসে মোটা অংকের টাকা পাঠায় ভারতে আত্মীয় স্বজনের কাছে। ওটা তাদের সেকেন্ড হোম। সেখানে বাড়ি-ব্যবসা কিনে ভারতের সমৃদ্ধির কাজ করছে। এ তালিকায় সুপ্রীম কোর্টের বিচারপতি এসকে সিনহা থেকে, সচিব, ইঞ্জিনিয়ার, জজ, ব্যারিষ্টার এমনকি ছোট ও মাঝারি কর্মকর্তারাও আছেন। তাদের অনাহুত নিরাপত্তা ভীতি থেকে তারা এগুলেঅ করে। এরা বাংলাদেশের অর্থনীতির নাশ করছে। এদেশের চাকরীর বাজার দখল থেকে নাশকতার মূলে কাজ করছে এসব অবৈধ ভারতীয়। বাংলাদেশে গার্মেন্টস শিল্পে অস্থিরতার মূল কারণ হিন্দুত্ববাদী ভারতের চক্রান্ত এবং এদেশে অবৈধ বসবাসকারী ভারতীয়দের ষড়যন্ত্র।

এখন পরিস্কার প্রশ্ন, যে ১২ লাখ ভারতীয় বাংলাদেশ লুটেপুটে খাচ্ছে, অন্তর্ঘাত করে বেড়াচ্ছে, তাদেরকে বাংলাদেশ থেকে তাড়ানো হবে কবে?