হোটেল হামলার পর মালিতে জরুরি অবস্থা জারি

0

ঢাকা: রাজধানী বামাকোর এক হোটেলে সন্ত্রাসী হামলার প্রেক্ষিতে শুক্রবার থেকে সারা দেশে দশ দিনের জরুরি অবস্থা জারি করেছে মালি সরকার। রক্তক্ষয়ী সামরিক অভিযানের মধ্য দিয়ে জিম্মি নাটকের পরিসমাপ্তির পর এই জরুরি অবস্থার ঘোষণা দেয়া হল। ওই অভিযানে তিন হামলাকারীসহ কমপক্ষে ২৭ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহত হয়েছেন আরো সাতজন।

শুক্রবার রাতে দেশের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার জন্য মন্ত্রিপরিষদের সঙ্গে জরুরি বৈঠকে বসেন প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম বৌবাকার কেইতা। বৈঠকে জরুরি অবস্থা জারি করার সিদ্ধান্তটি গৃহীত হয় যা শুক্রবার মধ্যরাত থেকে বলবৎ হয়েছে। পাশাপাশি মালিতে তিন দিনের জাতীয় শোক ঘোষনা করেছেন প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম। শনিবার সকাল থেকে ওই শোক শুরু হয়েছে। শুক্রবার রাতে দেয়া এক বিবৃতিতে তিনি জিম্মি হত্যার ঘটনাকে,‘অত্যন্ত মর্মান্তিক ও বেদনাদায়ক’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

শুক্রবার সকালে রাজধানী বামাকোর কেন্দ্রবিন্দুতে অবস্থিত পাঁচতারা র‌্যাডিসন ব্লু হোটেলে হামলা চালিয়ে হোটেলের ১৭০ জনকে জিম্মি করেছিল সন্ত্রাসীরা। পরে জিম্মিদের  উদ্ধারে হোটেলটিতে সামরিক অভিযান চালায় মালি। এই অভিযানে মালির নিরাপত্তা বাহিনীকে সহায়তা করেছে ফরাসী, মার্কিন এবং জাতিসংঘের বিশেষ সেনারা।

আল কায়দার সঙ্গে সম্পৃক্ত সশস্ত্র গোষ্ঠী ‘আল মৌরাবিতুন’ ওই হামলার দায় স্বীকার করেছে বলে আল জাজিরা জানিয়েছে। তারা আফ্রিকার ইমারাত আল সাহারা এবং আল কায়দা ইন দা ইসলামিক মাগরেব এই দুটি জঙ্গি গোষ্ঠীর হায়তায় পাঁচতলা হোটেলটিতে হামলা চালিয়েছিল বলে দাবি করেছে। বামাকো কারাগারে আটক জঙ্গিদের ছাড়িয়ে আনতেই তারা এ হামলা চালিয়েছিল বলে আল জাজিরা কার্যালয়ে প্রেরিত এক ভিডিও বার্তায় জানানো হয়েছে।