সোহরাওয়ার্দীর বিকল্পস্থানে সমাবেশের অনুমতি চাইবে বিএনপি : মির্জা ফখরুল

0

জিসাফো ডেস্কঃ ৭ নভেম্বর বিপ্লব ও সংহতি দিবসে সমাবেশের জন্য সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের পরিবর্তে বিকল্পস্থানে বিএনপি অনুমতি চাইবে বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শুক্রবার সকালে রাজধানীর চন্দ্রিমা উদ্যানে স্বেচ্ছাসেবক দলের নবগঠিত কমিটি শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সমাধিতে পুষ্পমাল্য অর্পন শেষে তিনি এ কথা জানান।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আওয়ামী লীগ গণতন্ত্র ও ভিন্ন মতে বিশ্বাস করে না বলেই সমাবেশের অনুমতি দিচ্ছে না। এমনকি আওয়ামী লীগ ক্ষমতার আসার পর থেকেই আমাদের সভা- সমাবেশের জন্য অনুমতি দেওয়া হয় না। তবে ৭ নভেম্বর সমাবেশের জন্য আমরা বিকল্প জায়গায় অনুমতি চাইবো। আমাদের প্রত্যাশা, আমরা সমাবেশের অনুমতি পাবো।

ব্রাক্ষণবাড়িয়া নাসিরনগরে হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, হিন্দু সস্প্রদায়ের বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় বিশেষ মহলের হাত রয়েছে। তবে সরকার জড়িত কি না সেটা তদন্ত ছাড়া বলা যাবে না।

সাম্প্রদায়িক সম্পৃত্তি বিনষ্ট করতেই এধরেনর ঘটনা নাসিরনগরের ঘটনা বলে মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল।

‘৭ নভেম্বর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের জন্য আরো অনেকে আবেদন করেছে’ সেই কারণে বিএনপিকে অনুমতি দেয়া হয়নি- সরকারের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, তারা ‘সরকার’ বিএনপিকে অনুমতি না দেয়ার জন্য এ অজুহাত দেখাচ্ছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, স্বেচ্ছাসেবক দলে শহীদ জিয়ার সমাধি শপথ নিয়েছে তারা গণতন্ত্র ফিরে আনতে সংগ্রাম করবে। এই সংগামে বিজয়ী না হওয়া পর্যন্ত তারা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে আন্দোলন চালিয়ে যাবে।

সরেজমিনে দেখা, গেছে, সকাল ১০ টা থেকে চন্দ্রিমা উদ্যানে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীরা উপস্থিত হতে থাকেন। এ সময় শহীদ জিয়ার সমাধির প্রবেশ পথে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা অবস্থান নিয়ে সংগঠনটির নেতাকর্মীরা ভিতরে প্রবেশে বাধা প্রধান করেন। তবে সকাল ১১ টা পর স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীদের ভিতের প্রবেশ করতে দেন।

এসময় বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, সহ-দফতর সম্পাদক মনির হোসেন, স্বেচছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েল, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম, স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা আখতারুজ্জামান বাচ্চু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।