সারাদেশে লীগের মধ্যে সংঘর্ষে আহত শতাধিক, ভাংচুর, অগ্নি সংযোগ

0

সামির রায়হান, ঢাকা : অভ্যন্তরীণ কোন্দল, আধিপত্য বিস্তার ও ভাগ-ভাটোয়ারা নিয়ে শনিবার দেশের বিভিন্ন জায়গায় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, ওলামা লীগ ও নবীন লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে হাতাহাতি, সংঘর্ষ, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, চেয়ার ছুড়ে মারা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনায় শতাধিক নেতাকর্মী আহত ও ৫ জনকে আটক করা হয়েছে।

রাজধানী : জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগের ইলিয়াস বিন হেলালী ও বোখারী গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটছে। এতে কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছেন। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার এঘটনা ঘটে।

কুমিল্লা : কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারী কলেজের কবি নজরুল হলের আবাসিক ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে এলাকাবাসীর ব্যাপক সংঘর্ষ, গুলি বিনিময় ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে।

শনিবার রাত সাড়ে ৯ টার দিকে এ সংঘর্ষ শুরু হয়ে রাত সাড়ে ১১টা  পর্যন্ত চলছিল। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থালে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

ময়মসিনংহ: ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলায় আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। শনিবার বিকেলে উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের সান্দাইন গ্রামে এসংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা ওবায়দুল্লাহ আনোয়ার বুলবুলের নিজ বাড়ি রসুলপুর ইউনিয়নের সান্দাইন গ্রামে আ. বাতেন এতিমখানা মাদরাসায় দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে সভা করা সময় স্থানীয় সংসদ সদস্য ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল সমর্থকরা হামলা চালায়। এসময় উভয় গ্রুপের নেতাকর্মীদের মধ্যে ইটপাটকেল নিক্ষেপেসহ ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটে।

এক পর্যায়ে এমপি বাবেল গোলন্দাজের সমর্থকরা আওয়ামী লীগ নেতা ওবায়দুল্লাহ আনোয়ার বুলবুলের এতিমখানা মাদরাসা এবং স্থানীয় আওয়ামী লীগ অফিসে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে। পরে তাঁরা এতিমখানা মাঠে থাকা ওবায়দুল্লাহ আনোয়ার বুলবুলের একটি প্রাইভেটকার অগ্নিসংযোগ করে জ্বালিয়ে দেয়।

এ ব্যাপারে এমপি সমর্থিত স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আবুল কাশেম বলেন, এ হামলার ঘটনার সঙ্গে এমপি বাবেল গোলন্দাজের কোন নেতাকর্মী জড়িত নয়। গফরগাঁও থানার ওসি তোফাজ্জেল হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে রসুলপুর বাজারে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জে যুবলীগের অনুষ্ঠানে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এসময় চেয়ার মারামারির ঘটনাও ঘটেছে। এতে জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এ কে এম সালাহ উদ্দিন টিপুসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন। শনিবার বিকাল ৫ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় যুবলীগের সংবর্ধনা ও বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী গ্রন্থ বিতরণ অনুষ্ঠান চলাকালে চন্দ্রগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক কাজী বাবলু ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি মোসলেহ উদ্দিন মুন্নার সমর্থকদের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থালে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম নগরীর ডবলমুরিং থানার আগ্রাবাদ সিজিএস কলোনীতে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপে সংঘর্ষ হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যা সোয়া ছয়টার দিকে এই সংঘর্ষ শুরু হয়। এতে কয়েকজন আহত হয়েছে। এই ঘটনায় চারজন আটক করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ডবলমুরিং থানার ডিউটি অফিসার এসআই আসিফ ইকবাল  জানান, সংঘর্ষের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ফোর্স গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। চারজনকে আটক করা হয়েছে। তবে সংঘর্ষের কারণ এখনো জানা যায়নি।

সিলেট: সিলেটের মদনমোহন (এমএম) কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে রুমেল আহমদ নামের এক ছাত্রলীগ কর্মী আহত  হয়েছে।  এ সময় সাহেদ আহমদ নামের এক ছাত্রলীগ কর্মীকে ছোরাসহ আটক করেছে পুলিশ। শনিবার বেলা ২টার দিকে কলেজ ক্যাম্পাসে এ সংঘর্ষের এ ঘটে।

ক্যাম্পাস সূত্রে জানা গেছে, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শনিবার বেলা ২টার দিকে মদনমোহন কলেজ ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ শুরু হয়। এসময় আওয়ামী লীগ নেতা বিধানের অনুসারী ছাত্রলীগকর্মী রুমেল আহমদ আহত হন। পরে তাকে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রাঙামাটি: রাঙামাটি সরকারি কলেজে ছাত্রলীগ  ও পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের (পিসিপি) মধ্যে সংঘর্ষ  অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। এ সময় কলেজের গেটের পাশে বাঙালি মালিকানাধীন ৭টি দোকানে ভাঙচুর চালিয়ে দোকানিদের মারধর করেন পাহাড়ি ছাত্ররা। এছাড়া কলেজের গেটে রাখা দুইটি মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেওয়া হয়। আজ শনিবার দুপুর ১টার দিকে কলেজ ক্যাম্পাসে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দুপুরে কলেজ ক্যাম্পাসে মিছিল বের করেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। মিছিল শেষে অর্ণব ত্রিপুরা নামে এক ছাত্রলীগ কর্মীকে ডেকে নিয়ে মারধর করেন পাহাড়ি কয়েক ছাত্র। পরে ছাত্রলীগ তাদের ওপর হামলা করে দুইপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ সময় পাহাড়ি ছাত্ররা কলেজের বাইরে থাকা সাতটি দোকানে ভাঙচুর ও দুইটি মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেয়। আহত শিক্ষার্থী ছাত্রলীগ কর্মী অর্ণব ত্রিপুরার অভিযোগ, পিসিপি কর্মীরা তাকে বিনা উস্কানিতেই মারধর করেছে।

এ বিষয়ে পিসিপির কেন্দ্রীয় সভাপতি বাচ্চু চাকমা গণমাধ্যমকে জানান, তাদের কিছু কর্মী কলেজ ক্যাম্পাসে দাঁড়িয়ে ছিলেন। এ সময় ছাত্রলীগ বিনা উস্কানিতে ইট নিক্ষেপ করলে সংঘর্ষ শুরু হয়।

ভৈরব: ভৈরবে নবীন লীগের ইউনিয়ন কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে ২ গ্রুপের সংঘর্ষে অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন । শনিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। জানা যায়, উপজেলার শ্রীনগর ইউনিয়নের ভবানিপুরে নবীন লীগের কমিটিকে কেন্দ্র করে শুক্রবার বিকালে সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী সুলাইমান গনি অপর প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন সমর্থনের মিছিলে হামলা চালিয়ে মারধর করে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শনিবার সকালে ভবানিপুরের চকবাজের ২ গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়।

এ সময় উভয় পক্ষের ৩০ জন আহত হন। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে আশঙ্কাজন অবস্থায় ৭ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাপাতালে প্রেরণ করা হয়।

এ ঘটনার পর এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন ও র‌্যাবের টহল জোরদার করা হয়েছে।