সাবাস, মধ্যযুগীয় বর্বরতাকেও হার মানিয়েছে আওয়ামী চেয়ারম্যান ও টাংগাইল পুলিশ – নিহত ৩

0

টাঙ্গাইলে ছেলের সামনে মাকে নির্যাতন ও ধর্ষণের অভিযোগের ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনতার সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে আরো একজনের মুত্যু হয়েছে। এই নিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো তিন জনে। এই ঘটনায় আহত হয়েছে অন্তত ৫০ জন।

ঘটনার পরপরই নিহত হয়েছেন শামীম (৩৫) ও ফারুক (২৮)। এরপরে মারাত্নক আহত অবস্থায় শ্যামল দাস (১৫) নামে আরেকজনকে মাথায় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে সাভারে তা মৃত্যু হয়।

গুলিবিদ্ধ শ্যামল দাস অন্তিম যাত্রায়
                                               গুলিবিদ্ধ শ্যামল দাস অন্তিম যাত্রায়

এই ঘটনায় এলকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে দু’একটি যানবাহন চলাচল করছে। এলাকার নিরাপত্তার জন্য আর্মড পুলিশ, র‍্যাব ও পুলিশ টহল দিচ্ছে।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর ঘাটাইল উপজেলার নিজ বাড়ি থেকে আল-আমিন ও তার মাকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যায় সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রোমা ও তার সহযোগীরা। তাদের আটকে রেখে বিবস্ত্র করে মারধরের পরে আল-আমিনের মাকে ধর্ষণ করে অভিযুক্ত রফিকুল।