সাংবাদিক কোপাল ছাত্রলীগ

0

কিশোরগঞ্জের নিকলীতে আব্দুর রহমান রিপন (৩৮) নামে এক সাংবাদিককে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে ছাত্রলীগ। বৃহম্পতিবার সকালে নিকলী উপজেলা সদরের মাইজহাটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত রিপন ঢাকা থেকে প্রকাশিত দৈনিক আলোকিত প্রতিদিন ও একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালের নিকলী উপজেলা সংবাদদাতা হিসেবে কর্মরত।
আহত সাংবাদিক রিপনের বাবা ফজলুর রহমান নয়াদিগন্তকে বলেন, অতিদরিদ্রদের জন্য ঘর নির্মাণ প্রকল্পের নাম করে উপজেলা ছাত্রলীগের একটি চক্র বিভিন্ন গ্রামের গরীব মানুষদের কাছ থেকে টাকা আদায় করছিল। আমার ছেলে প্রকল্পটির সত্যতা ও টাকা আদায়ের বৈধতা বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ করতে মঙ্গলবার ইউএনও অফিসে যান। এর জের ধরে বৃহস্পতিবার সকাল ৭টার দিকে আমার ছেলেকে বাড়ির সামনে দোকানে বসা অবস্থায় পেয়ে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-প্রচার সম্পাদক নাজিউর রহমান সোহেল ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। এতেই ক্ষান্ত হয়নি সোহেল সে আমার ছেলেকে নিস্তেজ অবস্থায় ফেলে রেখে বাড়িতে এসেও ভাঙচুর করে তার সাঙ্গপাঙ্গদের নিয়ে। পরে মুমূর্ষ অবস্থায় স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করে।

রিপনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। নিকলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সুত্রে জানা গেছে, আহত রিপনের মাথাসহ শরীরের একাধিক জায়গায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে চিহ্ন রয়েছে। শরীর থেকে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। তার মাথায় ৮টি সেলাই লেগেছে।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
রিপনের ছোট ভাই ছুটিতে আসা সেনাসদস্য রবিন বলেন, একদিকে আমার ভাই হাসপাতালে আরেক দিকে সোহেলের ভয়ে আমরা এখন বাড়ি ছাড়া। এ বিষয়ে আমরা মামলা করতেও ভয় পাচ্ছি।
নিকলী প্রেসক্লাবের সভাপতি হাবিবুর রহমান জানান, রিপনকে হত্যা চেষ্টার পেছনে স্থানীয় প্রভাবশালী এক জনপ্রতিনিধির প্রত্যক্ষ মদদ রয়েছে। তিনি জানান, মঙ্গলকার রিপন তথ্য সংগ্রহ করতে ই্‌উএনও অফিসে গেলে ছাত্রলীগ নেতা সোহেল ইউএনও মোহাম্মদ ইয়াহিয়া খানের উপস্থিতিতেই উপজেলায় কর্মরত কোনো সাংবাদিক ঘর নির্মাণ প্রকল্পের ব্যাপারে তথ্য নিতে এলে গাছে বেঁধে পেটানো হবে বলে হুমকি দেন। বিষয়টি সাংবাদিকেরা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কারার সাইফুল ইসলামকে জানানোর সিদ্ধান্ত নেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সোহেল বুধবার বিকেলে রিপনের বাড়িতে গিয়ে তার স্ত্রী স্কুল শিক্ষিকা পারভীন আক্তার ও মা তহুরা বেগমকে অশ্লীল গালিগালাজ করে। প্রতিবাদ করলে এ সময় রিপনের চাচিকে মারধর করে সোহেল এবং রিপনকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে আসে।

ব্যাপারটি পুলিশকে জানানো হলে বৃহস্পতিবার সকালে রিপনকে হত্যার উদ্দেশে কোপায় ছাত্রলীগ নেতা সোহেল। উৎস ডেইলি নয়াদিগন্ত