সরকার পছন্দের নির্বাচন কমিশন বসিয়ে নির্বাচনে জয়ী হওয়ার ষড়যন্ত্র করেছে

0

জিসাফো ডেস্কঃ জালিয়াতির জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী নির্বাচনে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং (ই-ভোটিং) পদ্ধতি চালু করতে চাইছেন বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি।

আজ বৃহ্স্পতিবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বিএনপির এ অভিযোগের কথা জানান জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

ইলেক্ট্রনিক ভিভাইস ব্যবহার করে ভোট দেওয়া ও গণনার পদ্ধতি হলো ই-ভোটিং। পৃথিবীর অনেক দেশেই এ ধরনের ব্যবস্থা চালু আছে।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির জ্যেষ্ঠ নেতা রিজভী বলেন, সরকার পছন্দের নির্বাচন কমিশন বসিয়ে নির্বাচনে জয়ী হওয়ার ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। ভোটারবিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসা আওয়ামী লীগ জনগণের ওপর আস্থা রাখতে পারছে না। তাই ষড়যন্ত্র ও কারসাজির মাধ্যমে ক্ষমতায় টিকে থাকার চেষ্টা করছে।

‘এই যে ই-ভোটিংয়ের যে কথা বলছেন প্রধানমন্ত্রী, এর সার্ভেয়ার (সার্ভার) থাকবে সরকারের নিয়ন্ত্রণে। সুতরাং, সরকার, সরকারের জন্য ভোট ম্যানিপুলেট (কারসাজি) করা খুবই সহজ হবে’, বলেন রিজভী।

‘আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যে ই-ভোটিং ব্যবস্থার কথা বলছেন প্রধানমন্ত্রী, তা নিঃসন্দেহে দুরভিসন্ধিমূলক। জনগণের ভোটকে স্বীয় উদ্দেশ্যে সাধনে জালিয়াতি করার প্রচেষ্টামাত্র। এটি প্রধানমন্ত্রীর আরেকটি ভেলকিবাজিরই বর্ধিত প্রকাশ’, যোগ করেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব।

সংবাদ সম্মেলনে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জনগণ সরকারের সব ষড়যন্ত্র রুখে দেবে বলে হুঁশিয়ার করে দেন রিজভী।