সতর্ক পশ্চিমা দেশগুলো, কূটনৈতিক লড়াই চলছ্‌ কূটনীতিক এলাকায় কঠোর নিরাপত্তা

0

পশ্চিমা দেশগুলোর সাথে সরকারের শীতল কূটনৈতিক লড়াই চলছে। জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় নিজ দেশের নাগরিকদের জন্য একের পর এক সতর্কবার্তা জারি করেছে অস্ট্রেলিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেনসহ পশ্চিমা দেশগুলো। এর মধ্যে গুলশানে কূটনীতিক এলাকায় কঠোর নিরাপত্তার মধ্যেই ইতালির নাগরিককে গুলি করে হত্যার ঘটনা পরিস্থিতিকে জটিল করে তুলেছে। তবে সরকার পশ্চিমাদের জঙ্গি হামলার আশঙ্কাকে ‘বাড়াবাড়ি’ এবং ইতালীয় নাগরিক হত্যাকে ‘বিচ্ছিন্ন ঘটনা’ হিসেবে দেখছে। এ ছাড়া ধারাবাহিকভাবে সতর্কবার্তা জারিকে সরকারের ওপর পশ্চিমাদের চাপ সৃষ্টির প্রচেষ্টা হিসেবে বিবেচনায় নেয়া হচ্ছে।
এমন ঘোলাটে পরিস্থিতির মধ্যে ব্রিটেনের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী হুগো সোয়ারের ঢাকা সফর স্থগিত করা হয়েছে। আগামী রোববার তিন দিনের সফরে তার ঢাকায় আসার কথা ছিল।
এ দিকে নিরাপত্তার অভাবে বাংলাদেশ সফর বাতিল করেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। গতকাল বৃহস্পতিবার নিজস্ব ওয়েবসাইটে এ তথ্য জানিয়েছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড। বাংলাদেশ সফরে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট দলকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেয়া হবেÑ সরকারের উচ্চপর্যায় থেকে এই নিশ্চয়তা দেয়ার পরও দেশটির ক্রিকেট বোর্ড এমন সিদ্ধান্ত নিলো। আর এর জন্য দায়ী করা হয়েছে বাংলাদেশে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জারি করা সতর্কবার্তাকে।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব রিয়ার অ্যাডমিরাল (অব:) খুরশেদ আলম নয়া দিগন্তসহ কয়েকজন সাংবাদিকের সাথে আলাপকালে বলেছেন, সাম্প্রতিক সময়ে দেশে জঙ্গিবাদ নিয়ে এমন কোনো পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়নি যে পশ্চিমাদের উদ্বিগ্ন হতে হবে। জঙ্গি হামলার আশঙ্কা সম্পর্কে তাদের কাছে সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য থাকলে তা যথাযথ প্রক্রিয়ায় সরকারকে জানাতে পারত। কিন্তু তা না করে সতর্কবার্তা জারি করে আতঙ্ক সৃষ্টি করা হয়েছে। এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে সরকারকে অস্থিতিশীল করতে চায় এমন কোনো মহল পরিকল্পিতভাবে ইতালির নাগরিক হত্যার সাথে জড়িত থাকতে পারে।
সংশ্লিষ্ট একাধিক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেছেন, ৫ জানুয়ারির জাতীয় নির্বাচনের প্রক্রিয়া নিয়ে পশ্চিমা দেশগুলো প্রকাশ্যেই তাদের উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার কথা জানিয়েছিলেন। পরবর্তী সময়ে ঢাকা ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের নির্বাচনী প্রক্রিয়ার অনিয়ম নিয়ে তাদের আপত্তি ছিল। যুদ্ধাপরাধ বিচারপ্রক্রিয়ার স্বচ্ছতা ও মান নিয়েও তাদের আপত্তি রয়েছে। দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়াবিষয়ক মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিসা দেশাই বিসওয়াল ও সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান মজিনাকে সরকারের উচ্চপর্যায় থেকে প্রকাশ্যেই তুচ্ছতাচ্ছিল্য করা হয়েছে। সব কিছু মিলিয়ে সরকারের ওপর পশ্চিমা দেশগুলোর ক্ষোভ ছিল। কিন্তু নিজ দেশের কূটনৈতিক ও বাণিজ্যিক স্বার্থ রক্ষার কৌশলগত কারণে হয়তো কঠোর কোনো পদক্ষেপ তারা নিতে পারছিল না। তবে এরই মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশের পণ্যের জিএসপি সুবিধা বাতিল করা হয়েছে, সরকার যাকে রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত হিসেবে অভিহিত করেছে। এসব নিয়ে সরকারের ওপর একটি চাপ সৃষ্টির উপায় পশ্চিমা দেশগুলো খুঁজছিল। তাই হঠাৎ করে জঙ্গি ইস্যু সামনে নিয়ে এসে তারা একটা পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চাইছে।
কর্মকর্তারা বলেন, জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের পূর্বনির্ধারিত বাংলাদেশ সফর বাতিল করা হয়েছে। একই সাথে পশ্চিমা দেশগুলো বাংলাদেশে অবস্থানরত তাদের নাগরিকদের জন্য সতর্কবার্তা দিয়েছে। এটি বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমর্যাদা ুণœ করেছে। একই সাথে বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনকেও ক্ষতিগ্রস্ত করবে।
ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত পিয়েরে মায়াদুন বলেছেন, জঙ্গি হামলার আশঙ্কা নিয়ে পশ্চিমা সরকারগুলোর কাছে হয়ত কোনো তথ্য থাকতে পারে। তাই তারা তাদের নাগরিকদের সতর্ক করে বার্তা দিয়েছে।
নতুন পরিস্থিতিতে আপনি কোনো সতর্কতা অবলম্বন করছেন কি নাÑ জানতে চাইলে তিনি বলেন, আগে আমি সাইকেলে বাসা থেকে অফিসে যাতায়াত করতাম। এখন গাড়ি ব্যবহার করি।
সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত ক্রিস্টিয়ান ফোথ বলেন, কূটনীতিক জোনে ইতালির নাগরিক হত্যা প্রমাণ করে গুলশান এলাকা বিদেশীদের জন্য নিরাপদ নয়।
প্রসঙ্গত, গত বুধবার সুইজারল্যান্ড ও দক্ষিণ কোরিয়া নিজ দেশের নাগরিকদের সতর্ক করে একই ধরনের বার্তা দিয়েছে। তবে এ ধরনের কোনো সতর্কতা জারির পরিকল্পনা নেই বলে জানিয়েছেন চীনের রাষ্ট্রদূত মা মিং ছিয়ান।
ব্রিটিশ প্রতিমন্ত্রীর সফর স্থগিত : ব্রিটেনের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী হুগো সোয়ারের ঢাকা সফর স্থগিত করা হয়েছে। আগামী রোববার তিন দিনের সফরে তার ঢাকা আসার কথা ছিল। সফরকালে প্রধানমন্ত্রীর সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও বাণিজ্যমন্ত্রীর সাথে তার বৈঠকের কর্মসূচি ছিল। এ ছাড়া ব্রিটিশ উন্নয়ন সংস্থা ডিএফআইডির অর্থায়নে দেশের বিভিন্ন এলাকায় পরিচালিত কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্পও পরিদর্শন করার কথা ছিল ব্রিটিশ মন্ত্রীর।
দ্রুত তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার আশা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের : ইতালির নাগরিক সিজার তাভেলা হত্যাকাণ্ড নিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে গতকাল দেয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গত সোমবার রাতের ঘটনার পর গুলশান থানায় হত্যা মামলা করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক জঙ্গিবাদ পর্যবেক্ষণ ওয়েবসাইট ‘সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রুপ’ এই হত্যাকাণ্ডের জন্য আইএস (ইরান-সিরিয়াভিত্তিক জঙ্গিবাদী সংগঠন) দায়িত্ব স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছিল। কিন্তু আইএসের ওয়েবসাইটে এ সংক্রান্ত কোনো তথ্য বাংলাদেশ পুলিশের গোয়েন্দারা পাইনি।
এতে বলা হয়, তাভেলা হত্যার মামলাটি গোয়েন্দা ও অপরাধ তদন্ত বিভাগে হস্তান্তর করা হয়েছে। আশা করা হচ্ছে, শিগগির তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়া যাবে এবং প্রকৃত অপরাধীকে আইনের আওতায় আনা সম্ভব হবে।
বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ইতালীয় নাগরিক হত্যাকাণ্ডের পর বারিধারাসহ ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকার নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। বিভিন্ন স্থানে পুলিশি টহল জোরদার করা হয়েছে এবং চেকপোস্ট স্থাপন করা হয়েছে। বিদেশী সংস্থা, বিদেশীদের আবাসস্থল, গুরুত্বপূর্ণ হোটেল, কাব ও আন্তর্জাতিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে নজরদারি বাড়ানোর জন্য সব থানাকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বিদেশীদের সাথে যোগাযোগ রাখার জন্য ওসিদের ওপর নির্দেশনা রয়েছে। এ ছাড়া সিটি এসবি সাদা পোশাকে নজরদারি বাড়িয়েছে।
অপ্রত্যাশিত ঘটনায় মন্ত্রীর সফর স্থগিত : এ দিকে লন্ডনে অপ্রত্যাশিত ঘটনার কারণে ঢাকায় ব্রিটিশ পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী হুগো সোয়ারের পূর্ব নির্ধারিত ঢাকা সফর স্থগিত করা হয়েছে বলে দেশটির হাইকমিশনের মুখপাত্র জানান। মুখপাত্র বলেন, বাংলাদেশ সংক্রান্ত ট্রাভেল অ্যাডভাইসের (ভ্রমণ বিষয়ক পরামর্শ) সাম্প্রতিক পরিবর্তন সত্ত্বেও চলতি সপ্তাহে ব্রিটিশ মন্ত্রীর ঢাকা আসার পরিকল্পনা ছিল। দুঃখজনকভাবে লন্ডনে অপ্রত্যাশিত ঘটনার কারণে তার এ সফর স্থগিত করতে হয়েছে।
হুগো সোয়ার তিন দিনের সফরে রোববার ঢাকা আসার কথা ছিল। মুখপাত্র আশা করেন শিগগির এ সফরটি অনুষ্ঠিত হবে।
এ দিকে জার্মানির অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও উন্নয়ন বিষয়ক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ড. গ্রিড মুলার দুই দিনের সফরে আগামী মঙ্গলবার ঢাকা আসার কথা রয়েছে। এ ব্যাপারে ঢাকায় জার্মান দূতাবাস জানিয়েছে, তারা পরিস্থিতি পর্যবেণ করছে। সামনের সপ্তাহে দেশটির একটি প্রতিনিধিদলের বাংলাদেশ সফরের কথা রয়েছে। এই সফর নিয়ে এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি।