সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত নারীকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

0

কেএম সবুজঃ নরসিংদীতে টাকা চুরির অপবাদে আঁকা বেগম (২৭) নামে এক নারীকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে পুলিশের এক সোর্সের বিরুদ্ধে।

সদর উপজেলার পাঁচদোনায় ইউনিয়নে চরমাধবদী এলাকার বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত রাস্তার পাশে গাছে বেঁধে চালানো হয় নির্যাতন। বিকালে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করেছে। আঁকা বেগম পাঁচদোনা ইউনিয়নের নেহাব গ্রামের বাসিন্দা।

এলাকাবাসী জানায়, চরমাধবদী এলাকার আবুল হোসেনের স্ত্রী রিনা বেগম (পুলিশের সোর্স) টাকা চুরির অপবাদে বৃহস্পতিবার সকালে আঁকা বেগমকে রাস্তার পাশে একটি গাছে বেঁধে লাঠিপেটা করে। নারীকে নির্যাতনের দৃশ্য দেখতে শতাধিক লোক জড়ো হয় তার বাড়ির সামনে।

টাকা চুরি করে থাকলে দরিদ্র এই নারীকে আইনের হাতে তুলে দিতে অনুরোধ জানান এলাকাবাসী। কিন্তু, রিনা কারও কথা না শুনে বিকেল পর্যন্ত রশি দিয়ে গাছে বেঁধে ওই নারীর ওপর নির্যাতন চালান।

বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে নরসিংদীর পুলিশ সুপার সাইফুল্লার আল মামুনের হস্তক্ষেপে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ নির্যাতিত নারীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

স্থানীয়রা জানায়, র্দীঘদিন ধরে রিনা এলাকায় পুলিশের সোর্স হিসেবে পরিচিত। এলাকায় তার অনেক প্রভাব। স্থানীয় কিছু নেতারাও তাকে আশ্রয় দেয়। সে সুযোগ কাজে লাগিয়ে রিনা এলাকায় নানা অপকর্ম করে বেড়াচ্ছে। সে পুলিশের সোর্স হওয়ায় তাকে সবাই ভয় পায়। এলাকার অনেকের নামে মিথ্যা মামলা করেছে সে। তাই তার সঙ্গে কথা বলতে অনেকে ভয় পায়।

বৃহস্পতিবার আঁকা বেগম নামে এক নারীকে দিনভর গাছে বেঁধে নির্যাতন করেন রিনা। তার ভয়ে কেউ সামনে গিয়ে বাধা দিতে পারেনি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে মাধবদী থানা পুলিশের ওসি মো. ইলিয়াছ জানান, ঘটনাস্থল থেকে নির্যাতিত নারীকে উদ্ধার করা হয়েছে। যাচাই-বাছাই করে মামলা করা হবে।