রায় ফাঁসের মামলায় সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর স্ত্রী-ছেলেকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

0

জিসাফো ডেস্কঃ রায় ফাঁসের মামলায় মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়া সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর স্ত্রী ফারহাত কাদের চৌধুরী ও ছেলে হুম্মাম কাদের চৌধুরীকে ছয় সপ্তাহের মধ্যে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

সেই সঙ্গে রায় ফাঁসের মামলায় তাদের খালাসের রায় বাতিল করে কেন যথাযথ সাজা দেওয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত। বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি জেবিএম হাসানের হাইকোর্ট বেঞ্চ স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে মঙ্গলবার এ আদেশ দেন। এ সময় আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল শহীদুল ইসলাম খান।

রায় ফাঁসের মামলার এক আসামির আপিল এডমিশনের শুনানিকালে হাইকোর্ট বেঞ্চ স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে মঙ্গলবার এ আদেশ দেন।

মানবতাবিরোধী অপরাধে ২০১৩ সালের ১ অক্টোবর বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সাকা চৌধুরীকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। সেদিন সকালে সাকা চৌধুরীর স্ত্রী, পরিবারের সদস্য ও আইনজীবীরা এই রায় ফাঁসের অভিযোগ তোলেন। তারা রায়ের ‘খসড়া কপি’ সংবাদকর্মীদের দেখান। এ ঘটনায় পরদিন ট্রাইব্যুনালের রেজিস্ট্রার শাহবাগ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। পরে পুলিশ এ ঘটনায় তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি (আইসিটি) আইনে মামলা করে।

ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) তদন্ত শেষে ২০১৪ সালের ২৮ আগস্ট সাকা চৌধুরীর স্ত্রী, ছেলে, আইনজীবী ফখরুলসহ সাতজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয়। চলতি বছরের ১৫ ফেব্রুয়ারি এই মামলার অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে বিচার শুরু করেন আদালত। ১৫ সেপ্টেম্বর আদালত রায় দেন ঢাকা সাইবার ট্রাইব্যুনাল। রায়ে আইনজীবীসহ পাঁচ আসামির বিভিন্ন মেয়াদে জেল-জরিমানা হয়েছে। অন্য দুই আসামি সাকা চৌধুরীর স্ত্রী ও ছেলে খালাস পান। মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলার গত বছরের ২১ নভেম্বর রাতে সাকা চৌধুরীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়।