রামপাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প ও কিছু অভিমত

0

রামপাল প্রকল্প নিয়ে ভারতের বিদায়ী হাইকমিশনার পংকজ সরেন গতকাল চাপাবাজি করেছিলেন। আজ অধ্যাপক আনু মোহাম্মদ জবাব দিলেন: বাংলাদেশে ভারতের হাইকমিশনার পঙ্কজ শরন বলেছেন, রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রে সুন্দরবনের কোন ক্ষতি হবে না। তাঁরা আন্তর্জাতিক রীতিনীতি মেনেই সব করছেন। তাহলে জনাব, আপনাদের দেশের আইনের কথা কি মনে করবেন একটু? আপনাদের পরিবেশ আইনেই তো এই প্রকল্প বেআইনী। আপনারা ভারতের আইনভঙ্গ করে গায়ের জোরে বাংলাদেশের জন্য, সারাবিশ্বের জন্য, সর্বনাশা এই কাজে নেমেছেন।

12096347_1074681579217443_5472081043666968304_n
আন্তর্জাতিক আইনের প্রসঙ্গ আনলে তো আপনাদের দাঁড়াবারই উপায় থাকবে না। এই প্রকল্প ধরে ঐ এলাকায় আপনাদের আরও নানা পরিকল্পনার কথা এখন বাংলাদেশের মানুষ জানতে শুরু করেছে। আমরা ভারতের সাথে বন্ধুত্ব চাই, কিন্তু একের পর এক বাংলাদেশের বিপর্যয় ঘটিয়ে আপনারাই বারবার, সীমান্তের মতো, বন্ধুত্বের পথে কাঁটাতারের বেড়া দিচ্ছেন।
আপনার পাশে দাঁড়িয়ে আমাদের বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী তো খুব জোর গলায় বললেন, আমাদের যতো বিদ্যুৎ দরকার ততো বিদ্যুৎ আপনারা ভারত থেকে দেবেন। তাহলে আর সুন্দরবনের ওপর এই জবরদস্তি কেনো? সুন্দরবন রক্ষার জন্য আপনাদের এই বিনাশী প্রকল্পের অনেকগুলো বিকল্পের কথা আমরা আমাদের সরকারকে বহুবার বলেছি।

12119166_1074681865884081_3379983306621869637_n
তার একটি আপনাকে সরাসরি বলি: এই প্রকল্প যেহেতু আপনাদের কোম্পানির, যেহেতু আপনাদের ‘সুপারক্রিটিকাল টেকনোলজি’ এখানে ব্যবহার হবে, যেহেতু আপনাদের বিশেষজ্ঞদেরই ভূমিকা এখানে, যেহেতু ব্যবস্থাপনাও আপনাদের, যেহেতু আপনাদের ব্যাংকের থেকেই ঋণ, যেহেতু সব সিদ্ধান্তও আপনাদের তাহলে ‘আন্তর্জাতিক আইন মেনে’ এই প্রকল্প আপনাদের দেশেই বাস্তবায়ন করেন, আমরা আপনাদের থেকে বিদ্যুৎ কিনে নেবো। লাভ দিয়েই কিনবো, চিন্তা করবেন না। কী বলেন?
বিনা ভোটের একটি অবৈধ সরকার কেবল জেদের বশে সুন্দরবনের নিকটেই কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প এগিয়ে নেয়ার গো ধরে বসে আছেন। অথচ সুন্দরবনের সন্নিকটে বিদ্যুৎ প্রকল্প প্রতিষ্ঠা করার নীতির কারনে ইতিমধ্যেই তারা আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছেন এবং এ প্রকল্পে কয়েকটি দেশ তাদের প্রতিশ্রুত বিনিয়োগ প্রস্তাব প্রত্যাহারের ঘোষনা দিয়েছেন।
রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প হলে সুন্দরবন বিপন্ন হয়ে যাবে। দেশের মানুষ পরিবেশের ক্ষতি হবে না এমন কোন স্থানে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প গড়ে উঠুক। কিন্তু কোনভাবেই সুন্দরবনের বিনিময়ে নয়।

লেখকঃ মোহাম্মদ মাইনুল ইসলাম।

লন্ডন। যুক্তরাজ্য