যুবলীগ ক্যাডারদের ছুরিকাঘাতে ছাত্রলীগ কর্মী খুন

0

বগুড়ায় যুবলীগ ক্যাডারদের ছুরিকাঘাতে ইব্রাহিম হোসেন সবুজ (২৬) নামে এক ছাত্রলীগ কর্মী নিহত হয়েছেন।এঘটনায় আহত হয়েছেন, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের আরও দুই নেতা। বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের ফুলবাড়ি এলাকায় সরকারি আজিজুল হক কলেজ পুরাতন ভবনের সামনে এ ঘটনা ঘটে।সবুজের বিক্ষুব্ধ সমর্থকরা তাৎক্ষণিকভাবে মিছিল বের করে রাস্তায় কয়েকটি গাড়ি ভাংচুর করেছে। তারা কলেজের সামনে প্রায় একঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে রাখে।

এ সময় আতংকে এলাকার সব দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায় ও সাধারন মানুষ ভয়ে ছুটছুটি করতে থাকে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশকে ফাঁকা গুলি ছুড়তে হয়েছে।পরে শহরের কামারগাড়ি এলাকায় কলেজের নতুন ভবনের সামনে একটি মোটর সাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়। বিকালে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা শহরের সাতমাথায় অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করে।এ ঘটনায় পুলিশ এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এলাকায় এখনও দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করেছে।

জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি নাইমুর রাজ্জাক তিতাস দাবি করেছেন, ছিনতাইয়ের প্রতিবাদ করায় ২ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সন্ত্রাসী নুরুল ইসলাম নুরুর নেতৃত্বে এ হামলা হয়।পুলিশ বলছে, রিকশা ভাড়া নিয়ে বিরোধে ছাত্রলীগ নেতা বেনজির ও যুবলীগ নেতা নুরুর মধ্যে সংঘর্ষের জের ধরে এ ঘটনা ঘটে।পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বেলা দেড়টার দিকে বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি বেনজিরের সমর্থক এক ছাত্র কলেজের সামনে রিকশা থেকে নামেন। তিনি ৪০ টাকা ভাড়ারস্থলে ২০ টাকা দেন।

এ নিয়ে তার সঙ্গে রিকশা চালকের বাকবিতন্ডা হয়। তখন ওই ছাত্র রিকশা চালককে চড়থাপ্পড় দেন। এ সময় ২ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম নুরুর সমর্থক এক ছাত্র এর প্রতিবাদ করেন।
খবর পেয়ে ছাত্রলীগ নেতা বেনজির তার সমর্থকদের নিয়ে কলেজের সামনে আসেন। যুবলীগ নেতা নুরু ও ছাত্রলীগ নেতা বেনজিরের সমর্থকরা মুখোমুখি হলে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে।আলোচনার এক পর্যায়ে যুবলীগ ক্যাডাররা ছাত্রলীগ কর্মী সরকারি আজিজুল হক কলেজের মাস্টার্স শেষ বর্ষের ছাত্র ও বগুড়ার কাহালু উপজেলার নাটহট্ট নহরাপাড়ার সাইফুল ইসলামের ছেলে ইব্রাহিম হোসেন সবুজকে ছুরিকাঘাত করে।

এ সময় কলেজের সামনে টিএ্যান্ডটি কলোনির মধ্যে দু’পক্ষের মধ্যে মারামারি হলে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক শিবলু শেখ ও যুবলীগের সাবেক নেতা বাপ্পী কুমার চৌধুরী আহত হন।আহত ইব্রাহিম হোসেন সবুজকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।বগুড়া সদর থানার ওসি (তদন্ত) আসলাম আলী জানান, রিকশা ভাড়া নিয়ে বাকবিন্ডার জের ধরে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের সময় ছুরিকাঘাতে একজন নিহত ও দু’জন আহত হয়েছেন।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ছাত্রলীগ কর্মী সবুজ হত্যার ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।