যশোরে আগামীর রাষ্ট্রনায়ক তারেক রমানের ১১তম “কারাবন্দী দিবস” পালিত

0
  • User Ratings (0 Votes) 0
    Your Rating:
Summary

৭ মার্চ আগামী দিনের রাষ্ট্রনায়ক, বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান, জননেতা জনাব তারেক রহমানের ১১তম কারাবন্দী দিবস উপলক্ষে যশোরে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির খুলনা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক জনাব অনিন্দ্য ইসলাম অমিতের নির্দেশনায় এবং যশোর জেলা বিএনপির ব্যাবস্থাপনায় আলোচনা সভা এবং তারেক রহমানের সুস্বাস্থ্য ও আশু স্বদেশ প্রত্যাবর্তন কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত।

Awesome

৭ মার্চ আগামী দিনের রাষ্ট্রনায়ক, বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান, জননেতা জনাব তারেক রহমানের ১১তম কারাবন্দী দিবস উপলক্ষে যশোরে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির খুলনা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক জনাব অনিন্দ্য ইসলাম অমিতের নির্দেশনায় এবং যশোর জেলা বিএনপির ব্যাবস্থাপনায় আলোচনা সভা এবং তারেক রহমানের সুস্বাস্থ্য ও আশু স্বদেশ প্রত্যাবর্তন কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত।

আলোচনা সভায় বিভিন্ন বক্তারা বলেন, জনাব তারেক রহমান রাজনীতিকে সাধারণ মানুষের কল্যানের মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করতে শুরু করেন। প্রতিহিংসা আর প্রতিশোধের রাজনীতির বলয়ের বাইরে এসে শুরু করেন এক প্রতিযোগীতামূলক কিন্তু কল্যানধর্মী রাজনীতি। রাজনীতিতে সহনশীলতা ফিরিয়ে আনতে তিনি এমনকি টুঙ্গিপাড়ায় অবস্থিত শেখ মুজিবের মাজার জিয়ারত করেন ও বিএনপির পক্ষ থেকে শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন করেন। তখনকার বিরোধীদলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়ের রাজনীতিতে আগমনের খবর শুনে ফুল পাঠিয়ে শুভেচ্ছা জানান। সেনাসমর্থিত অন্তর্বর্তীকালীন সরকার ৭ মার্চ ২০০৭ তারিখে তারেক রহমানকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতারের পরই তাঁর উপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালানো হয়। রিমান্ডের নামে তাকে দিনের পর দিন অমানুষিক নির্যাতন করা হয়। নির্যাতনের মাধ্যমে তার মেরুদন্ডের হাড় পর্যন্ত ভেঙ্গে দেয়া হয়।

বক্তারা বলেন, এ শুধু তারেক রহমানের মেরুদন্ড নয়, এ ছিল সাম্রাজ্যবাদ ও আধিপত্যবাদীদের চরম আতংক বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদের মেরুদন্ড ভেঙ্গে দেয়ার হীন চক্রান্তের-ই অংশ। এটা আরও পরিষ্কার হয়ে যায় যখন চিকিৎসার জন্য ঢাকা ত্যাগের প্রাক্কালে একটি গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিনিধিরা জোরপূর্বক তার নিকট থেকে রাজনীতি থেকে অব্যাহতি নেয়ার স্বাক্ষর নেন।

তবে মহান আল্লাহর অশেষ রহমতে বাংলাদেশের আগামী দিনের রাষ্ট্রনায়ক তারেক রহমান এবং বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল–বিএনপি কুচক্রিদের সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে অতিতের যে কোন সময়ের থেকে সু-সংগঠিত অবস্থানে আছে এবং খুব শিগগিরই বীরের বেশে দেশে ফিরে  আসবেন দেশনায়ক তারেক রহমান।কোনো অপশক্তিই তার অগ্রযাত্রাকে রুখতে পারবে না।

বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদলের বিপুল নেতা-কর্মির উপস্থিতিতে সভা শেষে বাংলাদেশের আগামী দিনের রাষ্ট্রনায়ক, বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান, জননেতা জনাব তারেক রহমানের সুস্বাস্থ্য ও আশু স্বদেশ প্রত্যাবর্তন কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

অংশ নেন- যশোর জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন খোকন, যুগ্ম সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, থানা বিএনপির সভাপতি নুরুন্নবী, সাধারণ সম্পাদক কাজী আজম, সাংগঠনিক সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন, নগর বিএনপির সভাপতি মারুফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মুনির আহমেদ সিদ্দিকী বাচ্চু, জেলা বিএনপির নেতা ইউসুফ আলী, সরফুদ্দৌলা ছোটলু, জেলা যুবদলের সভাপতি এহসানুল হক মুন্না, সহ-সভাপতি নুরুল ইসলাম বুল্লা, নগর বিএনপি নেতা জুবায়ের তানভির সিদ্দিকী, থানা যুবদল নেতা ইদ্রিস আলী, আব্দুর রাজ্জাক, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের খুলনা বিভাগীয় সহ-সভাপতি ও জেলা সভাপতি রবিউল ইসলাম, সদস্য- ফারুক হোসেন, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তফা আমীর ফয়সালসহ সকল অঙ্গসংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ।

Written&Published By: Zubair Tanvir Siddique