মার্কিন জরিপ প্রতিবেদন সাংঘর্ষিক: রিপন

0

ঢাকা: মার্কিন জরিপ সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল রিপাবলিকান ইনস্টিটিউট (আইআরআই)   দেশের রাজনৈতিক অবস্থা নিয়ে যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে তা সাংঘর্ষিক বলে দাবি করেছে দেশের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল বিএনপি।

শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এমন দাবি করে বিএনপির মুখপাত্র ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন বলেছেন, সম্প্রতি মার্কিন গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল রিপাবলিকান ইনস্টিটিউট (আইআরআই)  বাংলাদেশকে নিয়ে যে জনমত জরিপ প্রকাশ করছে তা সাংঘর্ষিক ও স্ব-বিরোধী। রাজনীতিতে এই জরিপের কোনো প্রভাব পড়বে না। তবে আশার বিষয়  হচ্ছে এই জরিপের মাধ্যমে দেশের জনগণ তত্ত্বাবধায়কের সরকারের অধীনে দ্রুত নির্বাচন চায়, সেটি আবারো প্রমাণিত হল।

জরিপের ফলাফল বিষয়ে রিপন বলেন, যদি সুষ্টুভাবে এ ধরনের জরিপ কর হয় তবে এর মাধ্যমে জনমতের সঠিক প্রতিফলন ঘটে। তারপরেও আমরা বলছি এই জনমত জরিপে মাত্র ২৫৫০ জন অংশগ্রহণ করেছে। কিন্তু এই জরিপের অনেকগুলো প্রশ্নের মধ্যে দেশের জনগণ দ্রুত নির্বাচন চায় কি না, জনগণ তত্ত্বাবধায়কের পক্ষে কি না, দেশ কেমন চলছে এসব বিষয়ে কয়েকটি প্রশ্ন ছিল। আর অন্য একটি প্রশ্ন ছিল প্রধানমন্ত্রীর জনপ্রিয়তা কতটুকু ও ক্ষমতাসীনদের প্রতি জনগনের আস্থা কেমন?
যেখানে জরিপে ৬৭ শতাংশ মত এসেছে তত্ত্বাবধায়কের মাধ্যমে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠানের পক্ষে সেখানে বর্তমান সরকার যখন এই ব্যবস্থা বাতিল করছে সেখানে কিভাবে তাদের জনপ্রিয়তা বাড়তে পারে প্রশ্ন  রাখেন রিপন। একইভাবে জরিপের তথ্যানুযায়ী প্রধানমন্ত্রীর জনপ্রিয়তা বেড়েছে একথাও বলা যায় না যোগ করেন তিনি। একারণেই আমরা বলছি, (আইআরআই)  বাংলাদেশকে নিয়ে যে জনমত জরিপ প্রকাশ করছে তা সাংঘর্ষিক ও স্ব-বিরোধী।

তিনি আরো বলেন, সরকার যদি এই জরিপকে ধারণ করেন তাহলে সরকারকে বলব তার যেন দ্রুত নির্বাচনের মাধ্যমে তাদের জনপ্রিয়তার প্রকৃত পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ নেবে। সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমেই তাদের জনপ্রিয়তার পরীক্ষা দিতে পারবেন।

বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, এই জরিপের সময়সীমা ছিল মে থেকে জুন পর্যন্ত। আর সরকার সম্প্রতি গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়িয়ে যে গণবিরোধী সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করছে তার পরে এই জরিপ করলে প্রকৃত অবস্থা বোঝা যেতো বলে মনে করেন তিনি।

এই জরিপের ফলে দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে কোনো নেতিবাচক প্রভাব পড়বে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে রিপন বলেন, আমাদের দলের নেতাকর্মীরা বিশ্বাসী। এই জরিপের ফলে তাদের মধ্যে কোনো নেতিবাচক প্রভাব পড়বে না। এমনকি দেশের সাধারণ জনগণও এর মাধ্যমে প্রভাবিত হওয়ার সুযোগ নেই।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির আইন সম্পাদক ব্যারিস্টার জিয়াউর রহমান খান, গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সানা উল্লাহ মিয়া, পরিবেশ ও জলবায়ু বিষয়ক সম্পাদক আফজাল এইচ খান, সহ- আইন সম্পাদক  অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।