ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে টাকা ছিনতাই; যুবলীগ নেতা রব্বানী গ্রেপ্তার

0

ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে সাড়ে ৩ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলা যুবলীগের নেতা গোলাম রব্বানীসহ দুজনকে সন্দেহভাজন হিসাবে আটক করেছে পুলিশ। এর আগেও গরু ব্যবসায়ীর টাকা ছিন্তাইয়ের মামলায় যুবলীগ নেতা গোলাম রব্বানী কয়েকমাস জেল খেটেছে বলে জানা যায়।

সোমবার (২৩ এপ্রিল) দুপুরে আটককৃতদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়। এর আগে রবিবার ভোর রাতে উপজেলার সিঙ্গিমারী এলাকা থেকে গোলাম রব্বানীকে ও দুপুরে দঃ গড্ডিমারী এলাকা থেকে জাহিদ হোসেনকে আটক করে পুলিশ।

আটক যুবলীগ নেতা গোলাম রব্বানী ঐ এলাকার আব্দুর রহিমের ছেলে। সে উপজেলা যুবলীগের সদস্য বলে জানা গেছে। অপরজন হলেন উপজেলার দঃ গড্ডিমারী এলাকার আবুল হোসেনের ছেলে জাহিদ হোসেন।

উল্লেখ্য গত শনিবার রাত ১১ টার দিকে উপজেলার মেডিকেল মোড়স্থ বৈশাখী হোটেলের মালিক মহির উদ্দিন তার হোটেল থেকে একটি ব্যাগে সাড়ে তিন লক্ষ্য টাকা নিয়ে নজরুল ইসলামের রিক্সায় চড়ে বাড়ির দিকে যায়। তার বাড়ির সামনে ইএসডিও অফিস সংলগ্ন রাস্তায় রিক্সা দাড়ালে হঠাৎ করে মুখোশ পরিহিত কয়েকজন ছিনতাইকারী অতর্কিত ভাবে মহিরের মাথায় ছুড়ি দিয়ে কোপাতে থাকে।

এ সময় তার হাতে থাকা সাড়ে তিন লক্ষ্য টাকার ব্যাগটি মাটিতে পরে যায়। তখন রিক্সা চালক নেমে দ্রুত ব্যাগটি নিতে গেলে তাকেও এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ছিনতাইকারীরা ব্যাগটি ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়।
চিৎকার শুনে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে হাতীবান্ধা মেডিকেল ও পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ নিয়ে যায়।
ঐ ঘটনায় হোটেল ব্যবসায়ী মহির উদ্দিনের মাথায় ৪ টি এবং রিক্সা চালক নজরুলের মাথায় ১৬-১৭টি সেলাই করা হয়েছে বলে জানান, হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য-কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার নাঈম হাসান।

আহত মহির উদ্দিন উপজেলার কাউঞ্চিল পাড়ার এলাকার মৃত আব্দুল গফুরের পুত্র।
আর আহত রিক্সা চালক নজরুল ইসলাম উপজেলার পশ্চিম বেজগ্রামের মৃত আবেদ মিয়ার পুত্র।

চাঞ্চল্যকর এই ছিন্তাইয়ের ঘটনায় অত্র এলাকায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠে। টনকনড়ে প্রশাসনের। উপজেলার আইনশৃঙ্খলা নিয়ে যাতে প্রশ্নের সম্মুখীন নায় হয় সেজন্য হাতীবান্ধা থানা পুলিশ আসামীদের ধরতে দিনরাত নিরলসভাবে কাজ করে এবং দ্রুততম সময়ে আসামীদের ধরতে সক্ষমও হন।

তবে গ্রেফতারকৃত জাহিদ হোসেনের পরিবার দাবি করেন, ওই ছিনতাইয়ের ঘটনার সাথে জাহিদ হোসেন জড়িত নয়। তাকে ফাসাঁনো হচ্ছে।

ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে টাকা ছিনতাইয়ের মামলার সন্দেহজনক আসামী গোলাম রব্বানী উপজেলা যুবলীগের সদস্য কিনা এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহিন হোসেন ঘটনায় সত্যতা নিশ্চিত করেন। তবে তাকে বহিষ্কারের বিষয়ে পরবর্তী উপজেলা যুবলীগের মিটিং ডেকে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে তিনি জানান।

হাতীবান্ধা থানার ওসি উমর ফারুক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আটককৃদের আজ দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। পুরো ঘটনাটি তদন্ত করার পাশাপাশি জড়িতদের গ্রেপ্তারে পুলিশ বিশেষভাবে কাজ করছে। উৎস নিউজ আর্গান