বিএনপিই এক নম্বর রাজনৈতিক দল: মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

0

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘বিএনপি এখনও ‘এক নম্বর রাজনৈতিক দল’। এই দলের চেয়ে বড় কোনো রাজনৈতিক দল এই মুহূর্তে বাংলাদেশে নেই’।

শনিবর নয়াপল্টনে ভাসানী ভবন মিলনায়তনে আয়োজিত এক প্রস্তুতি সভায় তিনি এসব কথা বলেন।৭ নভেম্বর বিপ্লব ও সংহতি দিবস উদযাপন উপলক্ষে ঢাকা মহানগর বিএনপি এ প্রস্তুতি সভার আয়োজন করে।মহাসচিব বলেন, ইদানীং আ.লীগের নেতারা, বিশেষ করে নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক যে কথাগুলো বলছেন, তার তো কোনো ভিত্তি নেই-ই বরং বিএনপি এখনও বাংলাদেশের এক নম্বর রাজনৈতিক দল। এর চেয়ে বড় কোনো রাজনৈতিক দল এই মুহূর্তে বাংলাদেশে নেই। সমাবেশ সফল করার মধ্যদিয়ে বিষয়টি আবার তাদের বুঝিয়ে দিতে হবে।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘গণতন্ত্রের জন্য, স্বাধীনতা–সার্বভৌমত্বের জন্য আমরা কঠিন সময় পার করছি। যে ৭ নভেম্বর আমরা পালন করতে যাচ্ছি অতীতে এই ৭ নভেম্বরই জাতিকে একটা কঠিন বিপর্যয় থেকে রক্ষা করেছিল’।

তিনি আরো বলেন, ‘সেদিন জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বে সৈনিক ও জনগণের মধ্যে একটা অভূতপূর্ব ঐক্য তৈরি হয়েছিল। সেই ঐক্য আধিপত্যবাদ থেকে বাংলাদেশকে রক্ষা করেছিল। আসুন অতীতের সব দ্বিধা-দ্বন্দ্ব ভুলে গিয়ে আবার আমরা ঐক্যবদ্ধ হই বিএনপির জন্য নয়, দেশের জন্য, গণতন্ত্রের জন্য, দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বের জন্য’।

সরকারের নীতিতে গণতন্ত্র পরিপন্থী উল্লেখ করে বিএনপির এই নীতিনির্ধারক বলেন, এখন আবার নতুন আইন তৈরি করা হয়েছে- পুলিশের কাছ থেকে অনুমতি না নিলে সমাবেশ করা যাবে না। আজ পার্টি অফিসের সামনে মিটিং করতে দেওয়া হয় না। সোহরাওয়ার্দীতে মিটিং করতে গেলে অনেক কাঠ-খড় পুড়িয়ে অনুমতি পাওয়া যায় একেবারে শেষ মুহূর্তে। তখন মঞ্চ তৈরির সময়টুকুও থাকে না।

বিষয়গুলো সামনে রেখেই আগামী ৭ নভেম্বরের সমাবেশ সফল করতে হবে বলেও জানান মির্জা ফখরুল।