বাবা কি মামলার আসামি জানতে চাইলে পুলিশের নির্যাতন

0

জিসাফো ডেস্কঃ চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার আকন্দবাড়িয়া তমালতলায় মামলার আসামি আকবার আলীকে গ্রেপ্তার করতে গিয়ে জীবননগর থানা পুলিশ তার বাড়ি তল্লাশি করে। এসময় বাবা কিসের আসামি জানতে চাইলে পুলিশ আকবর আলীর স্কুল পড়ুয়া কিশোরীসহ পরিবারের নারি সদস্যদের নির্যাতন করে।

জানা যায়, শুক্রবার রাতে জীবননগর থানার এসআই নাহিরুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ আকন্দবাড়িয়া তমালতলায় নিয়মিত মামলার আসামি আকবার আলীকে গ্রেপ্তার করতে যায় তার বাড়িতে। এসময় তাকে খুঁজতে ঘর তল্লাশি শুরু করলে ষষ্ঠ শ্রেণীতে পড়ুয়া কন্যা ইয়াসমিন পুলিশকে জিজ্ঞেস করে বাবা কি মামলার আসামি।

এতে এসআই নাহিরুল ইসলাম ক্ষিপ্ত হয়ে ইয়াসমিন, মা শিউলী বেগম ও ছোট বোন রাবেয়াকে (৭) চড়-থাপ্পড় ও লাথি মেরে গুরুতর আহত করে ফেলে রাখে। তাদের চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে পুলিশ তাদেরকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে চলে যেতে বলে।

আকবার আলীর মেয়ে ইয়াসমিন জানান, বাবা কি মামলার আসামি পুলিশের কাছে জানতে চাইলে এসআই নাহিরুল ইসলাম আমাদেরকে এ ভাবে নির্যাতন করে। ইয়াসমিন এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছে।

এ বিষয়ে এসআই নাহিরুল ইসলামের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করলে, স্কুল পড়ুয়া ইয়াসমিন ও পরিবারের সদস্যদের নির্যাতনের সকল অভিযোগ অস্বীকার করেন।

জীবননগর থানার ওসি হুমায়ুন কবির জানান, আসামি ধরতে যাবে বিষয়টি আমি অবগত আছি। তবে আসামি না পেয়ে কারো সঙ্গে পুলিশের এ আচরণ করার কথা নয়। প্রমাণ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও তিনি জানান।