বর্তমান সরকার নতজানু, তারা নতজানু পররাষ্ট্রনীতি নিয়ে চলছে

0

জিসাফো ডেস্কঃ জনগণকে সঙ্গে নিয়ে রাজপথে আন্দোলনের মাধ্যমেই এই সরকারকে পরাজিত করতে হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বিভিন্ন চুক্তির মাধ্যমে সরকার বাংলাদেশকে তাবেদার রাষ্ট্রে পরিণত করেছে। এ অবস্থা আর চলতে দেয়া যাবেনা। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে এবার রাজপথে আন্দোলনের মাধ্যমেই এই সরকারকে পরাজিত করতে হবে।

মঙ্গলবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনষ্টিটিউশন মিলনায়তনে এক প্রতিবাদী সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। ১১ এপ্রিল ২০১৭ দৈনিক আমার দেশ পত্রিকা বন্ধের ৪ বছরউপলক্ষে এ প্রতিবাদী সভার আয়োজন করে আমারদেশ পরিবার নামের একটি সংগঠন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরে বাংলাদেশের মানুষের নুন্যতম আশাও পূরণ হয়নি বলে মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, বর্তমান সরকার নতজানু, তারা নতজানু পররাষ্ট্রনীতি নিয়ে চলছে। তাই (ভারতের কাছ থেকে কিছু) আদায় করতে পারেনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্যেই ফুটে উঠেছে ভারত সফর থেকে বাংলাদেশ কিছুই পায়নি। প্রধানমন্ত্রী ভারত সফরের শেষ দিকে বলেছেন, পানি মাঙ্গা, লেকিন ইলেট্রিসিটি মিলা। কোই বাত নেহি কুছ তো মিলা। তার এই কথাতেই পরিষ্কার হয়ে গেছে বাংলাদেশ কিছুই পায়নি। শুধুমাত্র পয়সার বিনিময়ে বিদ্যুৎ পাবে।

তিনি বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী ভারত সফর করে এসেছেন। তিনি কী খেয়েছেন, কী দেখেছেন এসবই পত্রিকায় এসেছে। তবে একটি সুর সব গণমাধ্যমে উঠে এসেছে যে, তার সফরে বাংলাদেশের আশা পূরণ হয়নি। তিস্তা পানির বিষয়ে ন্যূনতম যে ব্যাপারটি ছিল সেটিও বাংলাদেশ পেলো না।

জঙ্গিবাদ নতুন অস্ত্র এমন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, তবে এটি বিছিন্ন ঘটনা নয়। ১৯৭১ সালের পরই নীল নকশা তৈরি করা হয়েছিল বাংলাদেশকে নিয়ন্ত্রিত রাষ্ট্র বানানোর জন্য। এ পথে তারা অনেক দূর এগিয়ে গেছে।

আমার দেশের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত আছেন, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, ফরহাদ মজহার, অধ্যাপক এমাজ উদ্দিন আহমদ, অধ্যাপক মাহবুব উল্লাহ সহ বুদ্ধিজীবী, পেশাজীবীসহ আরো অনেকে।