বগুড়াতে হাসিনার আগমন,প্রশাসনের তান্ডবে গরিবের পেটে লাত্থি,জনমনে আতংক

0

বগুড়া প্রতিনিধিঃ আগামিকাল বগুড়াতে আসছেন আওয়ামীলীগের সভানেত্রী,স্বৈরতন্ত্রের লেবাসে কথিত গনতন্ত্রের প্রবক্তা শেখ হাসিনা।আর তার এই আগমন উপলক্ষে বগুড়াতে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন নিরাপত্তার অযুহাত দেখিয়ে শহরে গত ৩ দিন ধরে ব্যাপক তান্ডবলীলা চালাচ্ছে। 

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে যে,গত ৭ নভেম্বর রাস্তায় অবস্থিত স্পীডব্রেকারগুলো তুলে ফেলার পর জনমনে প্রশ্ন জাগে যে কেন এইগুলো তুলে ফেলা হল???কিন্তু পরবর্তিতে জানা গেছে যে,শেখ হাসিনা আগমনটা নির্বিঘ্ন হতেই এই ব্রেকারগুলো তুলে ফেলা হয়েছে।

এদিকে রাস্তা পরিষ্কার অযুহাতে রাস্তার পাশে অবস্থিত গরিব ও নিম্নবিত্ত খেটে খাওয়া লোকদের একমাত্র অবলম্বন সব দোকানপাট ভেঙ্গে উচ্ছেদ করেছে পুলিশ প্রশাসন।

অন্যদিকে এই আগমনের  কারনে আগামিকাল শহরের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান,অফিস আদালত,দোকানপাট এমনকি সকল প্রকার যানবাহন বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন।

এদিকে শহরের জলেশ্বরীতলাতে অবস্থিত ঐতিহাসিক আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠে দুপুর ২ টায় বগুড়া জেলা আওয়ামীলীগের আয়োজনে জনসভায় ভাষন দিবেন তিনি।

এই জনসভার জন্য জলেশ্বরীতলার সকল কোচিং সেন্টার গতকাল থেকে বন্ধ করেছে প্রশাসন এবং সমাবেশস্থলে গত ৫ দিন ধরে ১৪৪ ধারা জারি করে জনসাধারনের চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে প্রশাসন।এতে ব্যাপক দুর্ভোগে পরেছে ঐ এলাকার লোকজনেরা।

 এছাড়া ১০ তারিখ থেকে আগামি ১৩ তারিখ পর্যন্ত আলতাফুন্নেছা,তার পার্শ্ববর্তী এলাকা এবং তিনি যে রাস্তা দিয়ে যাবেন ঐ রাস্তার ধারে অবস্থিত বাসা বাড়িতে যেন নতুন করে কোন মেহমান না উঠে এই ব্যাপারে কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে পুলিশ প্রশাসন আর এর পরেও যদি কোনো মেহমান ঐ সকল বাসা বাড়িতে উঠেন তবে তাদের ব্যাপারে আইনানুগ ব্যাবস্থা নেওয়ার হুমকি দিয়েছে পুলিশ।

শহরে এমন পরিস্থিতিতে জনমনে খুব আতঙ্ক বিরাজ করছে!