বক্তব্য প্রত্যাহার করলেন অর্থমন্ত্রী

0

সিলেট : সম্প্রতি মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত অষ্টম বেতন কাঠামোতে গ্রেড পরিবর্তনের দাবিতে চলমান শিক্ষকদের আন্দোলন নিয়ে ‘অসংলগ্ন’ মন্তব্যের জন্য দুঃখ প্রকাশ করলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

বৃহস্পতিবার বিকেল সোয়া ৪টায় সিলেট সার্কিট হাউজে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি বক্তব্যের জন্য শিক্ষক সমাজের কাছে দুঃখ প্রকাশ করে বক্তব্য প্রত্যাহার করেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষকদের আন্দোলনে আমি বিস্মিত হয়েছি। কারণ সরকারি সিদ্ধান্ত না জেনেই তারা আন্দোলন করছেন। এমতাবস্থায় সাংবাদিকরা শিক্ষকদের আন্দোলন নিয়ে আমার মতামত জানতে চাইলে আমি বলি শিক্ষকদের আন্দোলনটি অকারণেই শুরু হয়েছে। বিষয়টি আমায় পীড়া দেয়। কারণ আন্দোলনটা দেশের শিক্ষিত গোষ্ঠী করছেন। তারা সরকারি সিদ্ধান্ত সম্পর্কে পুরোপুরি অবগত না হয়েই আন্দোলন করছেন।’

কিন্তু তার বক্তব্যে ভুল বুঝাবোঝির সৃষ্টি হয়েছে জানিয়ে মুহিত বলেন, ‘আমি “জ্ঞানের অভাবে” তারা আন্দোলন করছেন, এটা বুঝাতে চাইনি। আমি বুঝাতে চেয়েছি তারা যথাযথ তথ্য না জেনেই আন্দোলন করছেন। তবে আমার বক্তব্যে যেহেতু ভুল বুঝাবোঝির সৃষ্টি হয়েছে, সেহেতু আমি দুঃখিত। আমার বক্তব্য অনভিপ্রেত ছিল। আমি আমার বক্তব্য প্রত্যাহার করছি। এখন ভুল বুঝাবোঝির অবসান হোক।’

এর আগে অষ্টম জাতীয় বেতন কাঠামো প্রস্তাবের পর থেকে গ্রেড অবনমনসহ কয়েকটি বিষয়ে নিজেদের আপত্তি তুলে আন্দোলন করছেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকরা।

কিন্তু শিক্ষকদের চলমান আন্দোলন নিয়ে গত মঙ্গলবার অর্থমন্ত্রী সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, ‘দেশের সবচেয়ে শিক্ষিত জনগোষ্ঠী জ্ঞানের অভাবে আন্দোলন করছেন।’ তার এমন মন্তব্যে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানান বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। আলটিমেটামের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে দুঃখ প্রকাশ করলেন অর্থমন্ত্রী।