পুলিশের লাঠি ছুড়ে মারা অতঃপর নিয়ন্ত্রনহীন মোটরবাইক এবং তিনটি লাশ

0

জিসাফো ডেস্কঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার বেড়তলা এলাকায় পাথরবোঝাই ট্রাকের চাপায় মোটরসাইকেলের তিন আরোহী নিহত হয়েছেন। হাইওয়ে পুলিশের তাড়া খেয়েই তিন মোটরসাইকেল আরোহী ট্রাকের নিচে চাপা পড়েন বলে এলাকাবাসী নিশ্চিত করেছেন।

নিহত তিনজন হলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ট্যাংক-লরি মালিক সমিতির সভাপতি জাহাঙ্গীর খন্দকার (৪২), সাধারণ সম্পাদক আলী আজম রাজু (৪৩) ও দপ্তর সম্পাদক শাহজাহান মিয়া (৫২)। নিহত সবার বাড়ি সদর উপজেলার ঘাটুরা গ্রামে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, তিন আরোহীসহ চলন্ত মোটর সাইকেলটি থামানোর সংকেত দেয় সরাইল বিশ্বরোড হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আনিসুজ্জামানের নেতৃত্ব মহাসড়কে টহলরত হাইওয়ে পুলিশ সদস্যরা। মোটর সাইকেল আরোহীরা যেতে চাইলে পুলিশের এক সদস্য পেছন দিক থেকে লাঠি ছুড়ে মারেন। এতে মোটর সাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পেছন দিক থেকে আসা পাথরবোঝাই ট্রাকের নিচে চাপা পড়ে। এসময় ঘটনাস্থলেই মোটর সাইকেলের আরোহীরা সবাই নিহত হন।

সোমবার বেলা পৌনে ১১টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনার পরপরই স্থানীয় ক্ষুব্ধ জনতা ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ করে রাখেন। এতে মহাসড়কের দুই পাশে ১০ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এসময় মহা সড়রকে দুই ঘন্টা যানচলাচল বন্ধ থাকে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা আরও জানান, দুর্ঘটনার পর দুপুর ১২ টার দিকে পুলিশের একটি রেকার দুর্ঘটনাস্থলে যাওয়ার চেষ্টা করলে স্থানীয় জনতা রেকারটি ভাঙচুর করে।

সরাইল বিশ্বরোড হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আনিসুজ্জামান তিনজন নিহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে মোটর সাইকেল লক্ষ্য করে হাইওয়ে পুলিশ সদস্যের লাঠি ছুড়ে মারার বিষয়ে তিনি কোন মন্তব্য করেননি।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম এ মাসুদ খবর পেয়ে দুর্ঘটনাস্থলে ছুটে যান্ তিনি সাংবাদিকদের জানান, এলাকাবাসীর অভিযোগের বিষয়টি তদন্ত করে দায়ী পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।