নেশা করে ভাই আপন বোনকে ধর্ষন করল

0

সম্প্রতি যে ঘটনাটি গনমাধ্যমে চঞ্চলকরভাবে ভা্ইরাল হয়েছে তা হলো নেশা করে  আপন বোনকে ধর্ষন করেছেন কুমিল্লার বুড়িচং এলাকায় জসিম উদ্দীনের ছেলে মেহেদি হাসান অপু এবং মাতা ফারজানা বেগমের মেয়ে জুমি কে তার আপন বড় ভাই মেহেদি হাসান অপু ধর্ষন করেছে বলে জানায় ফারজানা বেগম।

বিস্তারিত তদন্ত করার পর জানা গেছে যে জসিম উদ্দীনের প্রথম স্ত্রী মারা যাওয়ার পর জসিম উদ্দীন দ্বিতীয় বিবাহতে আবদ্ধ হন, তখন থেকেই মেজো ছেলে মেহেদি হাসান অপু দ্বিতীয় বউ এর প্রতি রাগ ক্ষোভ আর অভিমান ছিল এবং তাকে মা বলে ডাকতে ঘৃনাবোধ করত সে। এখান থেকে এই ঘটনার সৃষ্টি হতে পারে ধারণা পিতা জসিম উদ্দিনের। অন্যদিকে ফারজানা বেগমের প্রথম স্বামী মারা যাওয়ার পর বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন জসিম উদ্দিনের সাথে।

কিছুদিন যাবৎ তাদের সংসারে পারিবারিক কিছু লেনদেন নিয়ে ঝামেলা চলছিল। ছেলে মেহেদি হাসান অপু আগে থেকে বিভিন্ন রকম নেশা করত বলে অভিযোগ করেন ফারজানা বেগম। কেন নেশা করতেন জানতে চাইলে তার মা বলেন মেহেদির প্রথম মা মারা যাওয়ার পর থেকেই সে মায়ের শোক ভুলতে না পারায় সে নেশায় জড়িত হয় যা আজ অবধি নিয়মিত করে যাচ্ছে। গতকাল পারিবারিক ঝামেলার কারনে সে প্রচন্ড ভাবে নেশা করে বাসায় ফিরে। তখন রান্না ঘরে রান্না করছিল তার সৎ বোন জুমি। নেশাগ্রস্থ মেহেদি হাসান অপু জুমিকে কাজের বুয়া মনে করে জোর পূর্বক ধর্ষন করেন বলে জানান তার সৎ মা। এই ব্যাপারে মেহদী হাসানের সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে সে যোগাযোগ করতে অপারগতা জানায়। ছেলের এই রকম নৈতিক অধপতনমূলক আচরণে মা বাবা দুইজনেই খুবই উদ্বিগ্ন অবস্থায় আছে। এর আগেও মেহদীর বিরুদ্বে বিভিন্ন নারী কেলেংকারীর অভিযোগ রয়েছে।