নেপালে ভারতীয় পর্যটকদের বাসে আগুন

0

জিসাফো ডেস্কঃ নেপালে ভারতীয় পর্যটকদের বাসে আগুন দেয়া হয়েছে। এর ফলে নেপাল-ভারত রাজনীতিতে নতুন মাত্রা যোগ হলো।

সীমান্ত অতিক্রম করার অভিযোগে রোববার ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর ১৩ সদস্যকে কয়েক ঘণ্টার জন্য আটক করেছিল নেপাল পুলিশ। এছাড়া নেপালে ভারতীয় টিভি চ্যানেল সম্প্রচারও বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

অঘোষিত অবরোধ আরোপের প্রেক্ষাপটেই এসব ঘটনা ঘটছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ভারতীয় বংশোদ্ভূত মধেশীদের প্রতি নয়া দিল্লির সমর্থন রয়েছে বলেও বেশির ভাগ নেপালি মনে করে।

এসব ঘটনার প্রেক্ষাপটে নেপালের পোখরায় ভারতীয় পর্যটকবাহী বাসে আগুন লাগিয়ে দেয়া হলো। বাসটির নম্বর প্লেটে ভারতের নম্বর লেখা ছিল, ইউপি ৫১ টি ৮৩১১। পোখরা লেকের পাশে পার্কিং এলাকায় দাঁড়িয়েছিল উত্তরপ্রদেশের নম্বর লাগানো বাসটি। অজ্ঞাতপরিচয় কোনো গোষ্ঠী বাসটিতে আগুন লাগিয়ে দেয় বলে নেপাল পুলিশের দাবি। দুষ্কৃতীদের খোঁজ চলছে।

ভারতীয় বংশোদ্ভূত মাধেশি ফ্রন্টের আন্দোলনের ফলে ভারত-নেপাল সীমান্তে আটকে পড়ে রয়েছে পণ্য বোঝাই বহু ট্রাক। মাধেশি ফ্রন্টের আন্দোলনের মূলে রয়েছে নয়া সংবিধানের সাতটা প্রদেশের মডেল। এই নিয়েই তাঁদের মূল আপত্তি।এরআগে গত শুক্রবার নেপালে ভারতের প্রতি অসন্তোষ সৃষ্টি হওয়া নিয়ে গভীর আশঙ্কা প্রকাশ করেন নেপালে নিয়োজিত ভারতীয় রাষ্ট্রদূত রঞ্জিত রাই। তাঁর বক্তব্য এই অস্থির পরিস্থিতি একমাত্র আলোচনার মাধ্যমেই মোকাবিলা সম্ভব।