নিহত কর্মীর পরিবারের প্রতি দায়িত্ববোধ- সাবেক মন্ত্রী জননেতা জনাব তরিকুল ইসলাম কে ধন্যবাদ

1
  • User Ratings (0 Votes) 0
    Your Rating:
Summary

কর্মীর প্রতি বা কর্মীর অবর্তমানে তার পরিবারের প্রতি একজন নেতা হিসাবে দায়িত্ববোধের সংজ্ঞা তরুণ বয়স থেকেই তরিকুল ইসলামের কাছে অনেক ব্যাপক, সে কারণেই বিগত ৩৮ বছর ধরেই অনেকটা সবার অগোচরেই তরিকুল ইসলাম তার নিহত কর্মী আবদুল হক এর দরিদ্র পরিবারটির দেখভাল করেন এবং অদ্যাবধি করে যাচ্ছেন।

Awesome

ঘটনাটি ১৯৭৯ সালের সংসদ নির্বাচন কালীন। ’৭৯সালের সংসদ নির্বাচন কালীন সময়ে তৎকালীন বিএনপি প্রার্থী তরিকুল ইসলামের সমর্থক বোঝাই একটি ট্রাক চুড়ামনকাটি মেহেরুল্লাহনগর রেললাইন ক্রসিং এর সময় ট্রাকটিকে রাজশাহী গামী মেল ট্রেন ধাক্কা দিলে বহু মানুষ হতাহত হন। ওই দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান দরিদ্র পরিবারের তরুণ বিএনপি কর্মী আবদুল হক । ঘটনাটি এভাবেই শেষ হতে পারতো বা এভাবেই শেষ হয়, রাজনীতির চলমান প্রবাহে তাৎক্ষনিক ভাবে নিহত কর্মীর খোঁজ-খবর নিয়ে, তাঁর দাফন কাফনের ব্যবস্থা করেই তাদের দায়িত্ব সম্পন্ন হয়েছে বলে আত্মতৃপ্তি বোধ করেন নেতৃবৃন্দ।

কিন্তু কর্মীর প্রতি বা কর্মীর অবর্তমানে তার পরিবারের প্রতি একজন নেতা হিসাবে দায়িত্ববোধের সংজ্ঞা তরুণ বয়স থেকেই তরিকুল ইসলামের কাছে অনেক ব্যাপক, সে কারণেই বিগত ৩৮ বছর ধরেই অনেকটা  সবার অগোচরেই তরিকুল ইসলাম তার নিহত কর্মী আবদুল হক এর দরিদ্র পরিবারটির দেখভাল করেন এবং অদ্যাবধি করে যাচ্ছেন।

এইতো গত তিন দিন আগেও বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী তরিকুল ইসলাম তাঁর যশোর অবস্থানকালে ১৯৭৯ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচন কালে নিহত বিএনপি কর্মী আবদুল হকের মা শাহেদা খাতুন(৯৫)এর খোঁজ নেন এবং জানতে পারেন গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় শাহেদা খাতুন শয্যাশায়ী। ইচ্ছা থাকলেও শারীরিক অবস্থাও খারাপ হওয়ায় নিজে যেতে না পারলেও নিহত বিএনপি কর্মী আবদুল হকের মা শাহেদা খাতুন এর শারীরিক অবস্থার খবর জানা মাত্রই গতকাল দুপুরে সহধর্মিণী, যশোর জেলা বিএনপির সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির আহবায়ক অধ্যাপক নার্গিস বেগমকে খাবার-দাবার ও কিছু জরুরি সামগ্রীসহ শহরতলির দোগাছিয়া গ্রামে পাঠান। সেই ভরদুপুরেই অধ্যাপক নার্গিস বেগম হাজির হন সেখানে, বৃদ্ধা শাহেদা খাতুন নার্গিস বেগমকে দেখে কেঁদে ফেলেন। তিনি তাকে সান্ত্বনা দেন তাঁর শয্যাপাশে বেশকিছু সময় অতিবাহিত করেন এবং তাঁর চিকিৎসার ব্যাপারে সার্বিক খোঁজ-খবর নেন।

নিজের চরম দু:সময়েও নিহত কর্মীর পরিবারের প্রতি দায়িত্ব পালনের অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপনের জন্য  ধন্যবাদ সাবেক মন্ত্রী জননেতা জনাব তরিকুল ইসলাম কে।

জুবায়ের তানভীর সিদ্দিকী