নিরাপত্তা শঙ্কায় ক্যারোলিনায় মুসলিমরা

0

জি সা ফোঃ মুসলমানদের যুক্তরাষ্ট্রে আসা নিষিদ্ধ করার প্রস্তাব করেছিলেন দেশটির প্রেসিডেন্ট পদে রিপাবলিকান দলের মনোনয়নপ্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্প। এ নিয়ে ট্রাম্পের পক্ষে-বিপক্ষে আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে বিস্তর। নিন্দা করেছেন প্রেসিডেন্ট পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী নিজ দলের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরাও। প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাও। বলেছেন, চুড়ান্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতায় পৌঁছুতে পারবেন না ট্রাম্প।

পক্ষে-বিপক্ষে যাই বলা হোক, যুক্তরাষ্ট্রের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক নাগরিক ট্রাম্পের বক্তব্য সমর্থন করছেন। দলীয় প্রাক-প্রাইমারিতে ওহাইওতে জিততে না পারলেও নিউ হ্যামশায়ারে জিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় থাকার ইঙ্গিত দিলেন ট্রাম্প।

গেল বছরের জুনে নির্বাচনী প্রচারণার শুরু থেকে মুসলমানদের সম্পর্কে বিদ্বেষমূলক বক্তব্য দিয়ে আসছেন ট্রাম্প। বলেন, নির্বাচিত হলে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারি সব মুসলমানদের চিহ্নিত করতে কেন্দ্রীয় ডাটাবেজ গড়ে তোলা হবে। মেক্সিকান অভিবাসীদের নিয়েও কথা বলেন রিপাবলিকান দলের এ মনোনয়ন প্রত্যাশী। বলেন, অনুপ্রবেশ ঠেকাতে মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল তুলে দেয়া হবে। তবে নির্বাচনী সমাবেশে ট্রাম্পের বক্তব্য প্রধানত থাকে মুসলমানদের বিরুদ্ধে। সাউথ ক্যারোলিনায় নির্বাচনী প্রচারণায় মুসলিমবিরোধী মুখরোচক বক্তব্য অব্যাহত রেখেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।
রিপাবলিকান দলের অন্য মনোনয়ন প্রত্যাশীরা তাদের বক্তব্যে সরাসরি মুসলমানদের নিষিদ্ধ করার কথা না বললেও ট্রাম্পের কাছাকাছি থাকার চেষ্টা করছেন। দলের মনোনয়ন প্রত্যাশী বেন কারসেন বলেছেন, মুসলমান কাউকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হতে দেয়া উচিত হবে না। জেব বুশ বলেছেন, সিরিয়ার সব শরণার্থী নয়, শুধুমাত্র খ্রিস্টানদের ঢুকতে দেয়া উচিত। অন্যদিকে মনোনয়ন প্রত্যাশীরাও কম যাচ্ছেন না মুসলিম বিদ্বেষে। ‘উগ্র ইসলামি সন্ত্রাসবাদ’ ঠেকানোর কলাকৌশল নিয়ে জ্বালাময়ী বক্তব্য রাখছেন তারা।

প্রাক-প্রাইমারির তৃতীয় ধাপে শনিবার ভোটাভুটি হবে সাউথ ক্যারোলিনায়। এ ভোটের আগে রাজ্যের ইসলাম ভ্যালির মেয়র রামাদান সাইদ শাকির বলেছেন, ‘ট্রাম্পের বিদ্বেষী বক্তব্য মুসলমানদের কাছে এখনও মুর্তিমান আতঙ্কের নাম। ভোটাভুটির আগে পুরো বাজ্য চষে বেড়াচ্ছেন মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। নির্বাচনী প্রচারণায় মুসলিম বিদ্বেষী বক্তব্যে অস্বস্তিকর অবস্থায় পড়েছেন রাজ্যের মুসলিম নাগরিকরা। এতে এখানে বসবাসকারী মুসলমানরা নিরাপত্তাহীন বোধ করছেন।’

সাঈদ শাকির বলেন, ‘এটা দুঃখজনক যে, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট পদে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা ইসলাম ও মুসলমানদের নিয়ে যে ভাষায় বক্তব্য রাখছেন তা খুবই নোংরা, কুৎসিত। শুধুমাত্র মার্কিন মুসলমানদের নিয়ে কুৎসিত কথা বলে থামছেন না, বলছেন সারা বিশ্বের মুসলমানদের নিয়ে।’

রাজ্যের ইসলাম ভ্যালির মুসলমান বাসিন্দাদের সবাই জন্মসুত্রে আফ্রিকান-আমেরিকান। সাড়ে তিন দশক আগে আমেরিকার মুসলিম সংগঠন সাউথ ক্যারোলিনা রাজ্যে ইসলাম ভ্যালি প্রতিষ্ঠা করেন। গত ৩৬ বছর ধরে এ ইসলাম ভ্যালিতে বেড়ে উঠেছেন মেয়র সাঈদ শাকির। ইসলাম ভ্যালির শাখা শহর রয়েছে আমেরিকা জুড়ে।  উত্তর নিউ ইয়র্কের ইসলামবার্গ শহরে যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে মুসলিম অধ্যুষিত শহরগুলোর প্রধান কার্যালয়।

এদিকে নির্বাচনী প্রচারণায় অবৈধ অনুপ্রবেশ ঠেকাতে মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল তুলে দেয়ার প্রস্তাব করায় ট্রাম্পের কঠার সমালোচনা করেছেন ক্যাথলিকদের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা পোপ ফ্রান্সিস।

মেক্সিকো সফরে গিয়ে পোপ ফ্রান্সিস এ বক্তব্য দেয়ায় ট্রাম্প আদৌ খ্রিস্টান কি না সে প্রশ্ন তুলেছেন। বলেছেন, যে মানুষ সীমান্ত পারাপার সহজ করতে সেতু নির্মাণের কথা না বলে দেয়াল তোলার কথা বলছেন, তিনি খ্রিস্টান নন। ছ’ দিনের মেক্সিকো সফরের শেষ দিন বৃহস্পতিবার এ মন্তব্য করেন খ্রিস্ট ধর্মের সর্বোচ্চ নেতা পোপ ফ্রান্সিস।