দেশে কোনো ভিক্ষুক নেই

0

সিলেট: বর্তমানে দেশে কোনো ভিক্ষুক নেই বলে দাবি করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। যারা এখন ভিক্ষাবৃত্তি করছেন রাজপ্রাসাদ দিলেও তারা ভিক্ষাবৃত্তি ছাড়বেন না বলে মত তার।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সিলেট নগরীর রেজিস্টারি মাঠে সিলেট জেলা ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ‘দেশে গরীবের সংখ্যা কমেছে। মানুষের আয় ও জীবনযাত্রার মান বেড়েছে। ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্য আয়ের দেশে পরিণত করার ঘোষণা দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু এর মধ্যেই বাংলাদেশ কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছে গেছে। এখন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ২০৪১ সালের মধ্যে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার কাজ চলছে।’

দেশে শক্তিশালী বিরোধী দলের প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘ক্ষমতা খুবই ভয়ানক। ক্ষমতায় থাকলে কোনটা ভাল আর কোনটা মন্দ সেটা আমরা ভুলে যাই। এজন্য প্রয়োজন শক্তিশালী বিরোধী দল। খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে কখনো সুষ্ঠু নির্বাচন হয়নি। এজন্য তিনি ভেবেছিলেন আওয়ামী লীগও কারচুপির নির্বাচন করবে। শেখ হাসিনার আহ্বানে সাড়া না দিয়ে খালেদা জিয়া নির্বাচনে না গিয়ে দলকে ডুবিয়েছেন। এখন বিএনপির অস্তিত্ব বিলুপ্তির পথে।’

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমানে দেশে কোনো ভিক্ষুক নেই। ভিক্ষাবৃত্তি নিরোধের জন্য গত ৬ বছর থোক বরাদ্দ রাখা হয়েছিল। এ বছর থেকে তা বাদ দেয়া হয়েছে। দেশে লাখ খানেক লোক ভিক্ষা করে। এদের চরিত্রের মধ্যে ভিক্ষাবৃত্তি ঢুকে গেছে। রাজপ্রসাদ দিলেও তারা ভিক্ষাবৃত্তি ছাড়বে না।’

সিলেট জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সুব্রত পুরকায়স্থের সভাপতিত্বে ও মহানগর সভাপতি অ্যাডভোকেট শেখ মখলু মিয়ার পরিচালনায় সম্মেলন উদ্বোধন করেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা মো. আবু কাওসার।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বাহা উদ্দিন নাসিম, অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ, জেলার সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, সহ-সভাপতি ইমরান আহমদ এমপি, মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী এমপি ও আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী।

এর আগে বিকাল পৌনে ৪টার দিকে সম্মেলনে উপস্থিত হন অর্থমন্ত্রী। কিন্তু নেতাকর্মীদের ভিড় আর ঠেলাঠেলিতে মঞ্চে রাখা টেবিল ভেঙে যাওয়ার পর ক্ষুব্ধ হয়ে সম্মেলন ছেড়ে চলে যান তিনি। পরে আবার সম্মেলনে আসেন এবং প্রধান অতিথির বক্তব্যও রাখেন তিনি।