দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে যুক্তরাজ্য স্বেচ্ছাসেবক দলের বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত

0

জুল আফরোজ মজুমদার,যুক্তরাজ্যঃ মাদার অব ডেমক্রেসি’ গণতন্ত্রের মা- আপোষহীন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি ও বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমান এর উপর রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক মিথ্যা মামলায় সাজানো রায়ের প্রতিবাদে ও স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু ও সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াছিন আলীর মুক্তির দাবিতে যুক্তরাজ্য স্বেচ্ছাসেবক দল আজ ১৯শে মার্চ বৃটিশ পার্লামেন্টের সামনে এক বিশাল বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে।এতে যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন শহর থেকে স্বেচ্ছাসেবক দল, বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশ নেয়। এসময় তাদের হাতে ছিল বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের মুক্তি চাই সম্বলিত প্লেকার্ড ও পোস্টার।

একইভাবে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পদত্যাগ দাবী করেও প্লেকার্ড প্রদর্শন করতে দেখা গেছে। বিক্ষোভ সমাবেশ পরবর্তী প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাজ্য স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি নাসির আহমেদ শাহীন।সভা পরিচালনা করেন সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ আবুল হোসেন।এতে প্রধান অতিথি ছিলেন যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালেক,বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন কয়ছর এম আহমেদ।

বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশে আজ আদালতের উপর মানুষের বিশ্বাস সেই। এখন আদালত থেকে মানুষ আর সুবিচার পায় না। দেশের সর্বোচ্চ আদালতকেও দলীয় করন করা হয়েছে। সরকারের প্রত্যক্ষ মদদে আদালতকে ব্যবহার করে সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে বেগম খালেদা জিয়াকে বন্ধী করে রাখা হয়েছে বলে বক্তারা অভিযোগ করেন। সভায় বক্তারা অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দিয়ে সুষ্ঠু নির্বাচনের পথ উন্মোচন করতে বিশ্ব নেতৃবৃন্দের প্রতি আহবান জানান। সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাজ্য বিএনপির সাবেক উপদেষ্টা মুজিবুর রহমান মুজিব, আলহাজ্ব তৈমুছ আলী, আব্দুল হামিদ চৌধুরী,মুজিবুর রহমান মুজিব,আবুল কালাম আজাদ,গোলাম রব্বানি,গোলাম রব্বানি সোহেল,শহীদুল ইসলাম মামুন,কামাল উদ্দীন,ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ,খছরুজ্জামান খছরু,ছাদিক মিয়া,আবেদ রাজা,সেলিম মিয়া,রহীম উদ্দীন,আফজল হোসেন,শফিকুল ইসলাম রিবলু,মিছবা বি এস চৌধুরী,সরফরাজ সরফু,আবু নাসের,শেখ কামাল চৌধুরী,হাবীবুর রহমান,বাবর চৌধুরী,জাসাস সভাপতি এমদাদ হোসেন, মহিলা দলের সদস্য সচিব অঞ্জনা আলম,লন্ডন মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি আব্দুর রব,সাংগঠনিক সস্পাদক খালেদ চৌধুরী,তোফায়েল হোসেন মৃধা,মোঃ জিয়াউর রহমান, মো: মঈনুল ইসলাম,মিলাদ হসেন রুবেল,কামরুন্নহার সাহানা,আশিক বকস,মোমিন মিয়া,শাকিল আহমদ,জামাল হোসেন,ইমরান হোসেন,আপ্তাব আলী,দেলোয়ার হোসেন,জমির আলী,আব্দুস সামাদ রাজ,খালিদ আল হোসেন রিয়াদ,আবদুল হক শাওন,মুহাম্মদ সজীব,এম নেছার উদ্দিন,নজরল ইসলাম,এম ডি বশির মিয়া,লাল মিয়া,হাসান জাহেদ,সায়েক উদ্দিন।

স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতৃবৃন্দের মধ্যে যারা উপস্থিত ছিলেন মিসবা বি এস চৌধুরী,জিয়াউর রহমান জিয়া,শরিফুল ইসলাম,মুস্তাফিজুর রহমান,ফেরদাউস আতাউর রহমান,মিফতা তুরন মিয়া,শাহ জামাল,শহীদুল ইসলাম স্বপন,মজনু মিয়া,জিয়াউল ইসলাম দিপু,রফিকুল ইসলাম রফু,ডালিয়া লাকুরিয়া,জাহাঙ্গীর আলম সিমু,ফয়জুল ইসলাম শ্যামল,জাহেদ তালুকদার,কামাল মিয়া,শেখ সাদেক,বাবরুল হোসেন বাবুল,জমির আলী,হারুনুর রশীদ,তাজুল আলম,কোরেশী রানা,দিলাল আহমেদ,মাসুদ রানা,জাকির হোসেন,প্রচার সম্পাদক জুল আফরোজ মজুমদার,দুলাল রহমান,মোহাম্মদ বশীর মিয়া,ফজলে রহমান,মোহন মিয়া,মোহাম্মদ বদরুল ইসলাম,রাসেল আহমেদ,আব্দুল আলীম,দুলাল রহমান,এমদাদুল হক,আজিবুর রহমান,আব্দুল আলীম,হিমেল মিয়া,শাহ আলম,রাসেল মিয়া,রুহুল আমীন,মাসুদ রানা,ফজলে রহমান পিনাক,মিজানুর রহমান শেখ লাকী,আলমগীর হোসেন,জাকির হোসেন,কামরান আহমেদ,সৈয়দ আহমেদ রাব্বী মিয়া,জিলু মিয়া,আফজল হোসেন,জামিল আহমেদ,রাহাত মিয়া,রায়হান আহমেদ,রবিউল ইসলাম,নাসির আহমেদ,মোহাম্মদ আলী,মোহাম্মদ নাজমুস সাকিব,কামরান,সুয়েব মিয়া,নজরুল ইসলাম,সজল মিয়া,যুবদলের দেওয়ান আব্দুল বাছিত,সৈয়দ লায়েক মোস্তফা,কবির মিয়া,আছাব আলী,ফলিক আহমেদ,জাহাঙ্গীর আলম,জাকির হোসেন বাবুল,গনী,সৈয়দ দিপন,জাহেদ হোসেন,মিল্টন আহমেদ,শাহ খালেদ।

জাসাস নেতৃবৃন্দের মধ্যে ইকবাল হোসেন,হাবিবুর রহমান বাবলু, বদরুল ইসলাম বদরুল,বাহারুল ইসলাম বাহার,বদরুল ইসলাম,সুমি বেগম, আরিফুল ইসলাম,রেবেকা সুলতানা,সুজন শীল, মিজানুর রহমান, সাইদুল ইসলাম শিমুল,সাদেক হাওলাদার প্রমুখ।