দুদকের মামলায় এমপি বাদে সব গ্রেপ্তার

0

বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক লিমিটেডের প্রায় সোয়া কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গতকাল রোববার একটি মামলা করেছিল দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। যে মামলায় আসামি করা হয়েছে নীলফামারী-৪ আসনের সংসদ সদস্য মো. শওকত চৌধুরীসহ ব্যাংকটির আট উর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে।

মামলার পরই দুদকের অভিযানে ৯ আসামির মধ্যে ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হলেও সোমবার পর্যন্ত গ্রেপ্তার হয়নি ক্ষমতাসীন দলের সেই সাংসদসহ আরো দুই আসামি।

দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রনব কুমার ভট্টাচার্য্য  মামলা ও গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ওই সাংসদ ও অসাধু কিছু ব্যাংক কর্মকর্তারা পরস্পর যোগসাজশে ক্ষমতার অপব্যবহার করে প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকের বংশাল শাখা হতে মেসার্স উদয়ন এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের নামে দুইটি এলসি খোলে। ওই এলসির বিপরীতে আমদানিকৃত পণ্যের মূল্য বাবদ ব্যাংকের ৮২ লাখ ৮৯ হাজার ৮৯৫ টাকা উত্তোলন করেন। যা পরবর্তীতে সুদাসলে ১ কোটি ১১ লাখ ৭৮ হাজার ৮৯১ টাকা হয়। তারা ২০১২ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত সময়ের মধ্যে উত্তোলনকৃত এসব টাকা আত্মসাত করেছেন বলে দুদকের অনুসন্ধানে প্রমাণিত হয়।

বাকিদের কেন গ্রেপ্তার করা হয়নি জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক দুদক কর্মকর্তা বলেন, বাকি আসামিদের পাওয়া যায়নি বলে গ্রেপ্তার করা হয়নি। এছাড়া সংসদ চলাকালীন কোনো সাংসদকে গ্রেপ্তার করতে হলে স্পিকারেরর অনুমোদন নিতে হয়। তাই সাংসদকেও গ্রেপ্তার করেনি তদন্ত কর্মকর্তা।