ঢাকার জলাবদ্ধতা দূরীকরণে খাল কেটে নৌকা চলাচলের নির্দেশ শেখ হাসিনার

0

কেএম সবুজঃ ঢাকা শহরের বক্স কালভার্ট ভেঙে খাল করার কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, খালের উপরে রাস্তা, নিচে খাল ও খালের ওপর নৌকা চলবে। যেখানে খাল ছিল সে খাল আবার উদ্ধার করা হবে। বুধবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাস ভবন গণভবনে ভারত সফর শেষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিক শাইখ সিরাজের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলনে পানি সমস্যার সমাধানে বেশ কিছু পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন। ঢাকার জলাবদ্ধতা দূর করতে বক্স কালভার্ট ভেঙে খাল করে নৌযান চলাচলের ব্যবস্থা এবং তার ওপর দিয়ে রাস্তা তৈরির পরিকল্পনার কথাও বলেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিস্তা পানি চুক্তির জন্য ভারতের আশ্বাসের ওপর বিশ্বাস করে বাংলাদেশ বসে নেই। আমি কোনো কিছুতেই কারও ওপরই ভরসা করে চলি না। আমার দেশের পানির ব্যবস্থা কীভাবে করতে হবে— সেটা আমি করে যাচ্ছি। নদী ড্রেজিং করছি। জলাধার তৈরি, পুকুর খনন করছি। পানি যাতে ধরে রাখা যায়, সেই ব্যবস্থা করছি।

তিস্তাচুক্তি প্রসঙ্গে ভারতের আশ্বাসের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, তারা কথা দিয়েছে। এজন্য অপেক্ষা করেন। আর তাদের পানি না নিয়ে কি আমাদের চলবে না? আমরা নিজেরাই নিজেদের ব্যবস্থা করছি। পানির সমস্যা যাতে নিজেরা সমাধান করতে পারি, সেই ব্যবস্থা করছি। তিস্তাচুক্তি নিয়ে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, তারা মমতার বিকল্প প্রস্তাব নিয়ে চিন্তা করছে। এই বিকল্প প্রস্তাবটি কী, আমরা জানি কি না— এমন প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, সব কথা এখন জানার তো দরকার নেই। আর এটা তাদের অভ্যন্তরীণ প্রস্তাব। তারা বিকল্প প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা করবে। তাদের প্রস্তাব তাদের ওখানে থাকতে দেন। দরকার হলে তাদের জিজ্ঞাসা করেন।
এবারের সফরে তিস্তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে কি-না, এমন প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দ্বিপাক্ষিক সব বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। আমি গিয়েছিলাম বাংলাদেশ ভবন স্থাপন করতে, কাজেই সেটার ওপর জোর দিয়েছিলাম। তিস্তার বিষয়ে যৌথ নদী কমিশন আছে। তারা আলোচনা করছে।