জিয়া সাইবার ফোর্স – আনুষ্ঠানিক ভাবে ঘোষোণা করল সন্মানিত উপদেষ্টা মন্ডলীর নাম

0

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

জিয়া সাইবার ফোর্স এর সকল শুভানুধ্যায়ী সদস্য, পরিচালনা পরিষদ এর সন্মানিত সদস্য সহ সকল কে আন্তরিক শুভেচ্ছা। সময়ের পরিক্রমায় বহু প্রতিকুলতা পেরিয়ে,নানা বাধা বিপত্তি পেরিয়ে আজ জিয়া সাইবার ফোর্স – বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল পন্থী একটি শক্তিশালী প্রচার মাধ্যম হিসাবে নিজেদের দায়িত্ব সঠিক ভাবে পালন করে যাচ্ছে এবং ভবিষ্যৎ কালেও করতে অংগীকারাবদ্ধ। মহান স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ রাষ্ট্রপতি ও বাংলাদেশে বহুদলীয় গণতন্ত্র ও রাজনীতির প্রবর্তক মেজর জেনারেল জিয়াউর রহমানের আদর্শ কে আত্মস্থ করে, বি এন পি চেয়ারপার্সন, উপমহাদেশ এর প্রথম মহিলা প্রধানমন্ত্রী এবং বাংলাদেশের তিন বার নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এবং তারুন্যের অহংকার দেশনায়ক জনাব তারেক রহমানের রাজনৈতিক নির্দেশনায় কোটি কোটি নিঃস্বার্থ দেশপ্রেমিক কর্মী ও জনতার মত অনুপ্রাণিত হয়ে দেশ, জনগন ও দলের জন্য কাজ করে যাচ্ছে এই সংগঠন। সংগঠন এর সকল সন্মানিত সদস্যবৃন্দের আন্তরিকতা আমাদের সামনে চলার পথে সব সময় ই প্রেরণা যুগিয়েছে। আমরা আপনাদের প্রতি, দলের প্রতি কৃতজ্ঞ, আপ্নারা আমাদের উপর আস্থা রেখে পবিত্র দায়িত্ব দিয়েছেন, করেছেন সন্মানিত।

14572412_1677228652590047_1500695502445827546_n

অবশ্যই একটি সংগঠন এর সাংগঠনিক অবকাঠামো প্রয়োজন তার অস্তিত্ব রক্ষায় এবং ভবিষ্যৎ সময়ে নিপুন ভাবে এগিয়ে চলা এবং কার্যক্রম অব্যাহত রাখার জন্য।আর এই বিষয় টি তে আলোকপাত করেই জিয়া সাইবার ফোর্স – সন্মানিত ও পরম শ্রদ্ধেয় ব্যাক্তিবর্গ কে এই সংগঠনের পথ নির্দেশক হবার জন্য বিনীত অনুরোধ জানান। কার্যনির্বাহী পরিষদের সকল সদস্যের অনুরোধ ও দেশ, দল ও জনগনের প্রতি দায়িত্ব বোধ কে পরিলক্ষিত করে পরম শ্রদ্ধেয় ও সন্মানিত ব্যাক্তিবর্গ সদয় সন্মতি দেন সংগঠন এর সন্মানিত উপদেষ্টা মণ্ডলীর আসন কে অলংকৃত করতে।

গত ২৬ অক্টোবর ২০১৬ ইং রোজ বুধবার জিয়া সাইবার ফোর্স আয়োজিত “সুন্দরবন বাচাও, রামপাল কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র ঠেকাও” শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির আসন অলংকৃত করেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের সন্মানিত সুযোগ্য ও কর্মীবান্ধব মহাসচিব, বাংলাদেশের রাজনিতীর অন্যতম প্রাণপুরুষ এবং পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ জনাব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। উক্ত সেমিনারের প্রারম্ভেই জিয়া সাইবার ফোর্স এর তৎকালীন উপদেষ্টা পরিষদের বিলুপ্তি ঘোষনা করে স্কোয়াড্রন লীডার ওয়াহিদ-উন-নবী (অবঃ) ভাই এর নির্দেশনায় সংগঠন এর সদস্য সচিব জনাব কে এম হারুন প্রেস রিলিজ ও পরবর্তী তে মিডিয়ার সুবিধার্থে সন্মানিত উপদেষ্টা মন্ডলীর সচিত্র ব্যানার ও প্রদর্শন করেন।

press-relese-pdf-jpg

সন্মানিত উপদেষ্টা মন্ডলীর নিকট আমরা কৃতজ্ঞ এবং তাদের কে অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে সশ্রদ্ধ সালাম এবং অভিনন্দন জানাই আমাদের অনুরোধে সাড়া দিয়ে আমাদের কে সঠিক পথনির্দেশনা দিতে, অত্যান্ত ব্যাস্ত এবং মুল্যবান সময়ের মধ্যেও আমাদের কে স্থান দিয়ে সন্মানিত করায়।

আমাদের অনুরোধের ও অন্তরের দাবীর প্রতি সন্মান দেখিয়ে যে সন্মানে আপ্নারা আমাদের কে সন্মানিত করেছেন, আমরা আজীবন কৃতজ্ঞচিত্তে তা স্মরন রাখব এবং একই সাথে এই অংগীকার করব যেন আপনাদের দেয়া প্রতিটি নির্দেশনা সঠিক ভাবে পালনে সক্ষম হই।

কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরন করছি, এ কে এম ওয়াহিদুজ্জামান স্যার, শহিদুল ইসলাম বাবুল ভাই ও স্কোয়াড্রন লীডার ওয়াহিদ- উন- নবী ভাই এর ভুমিকা এবং প্রেরনা কে,যে প্রেরনা আমাদের কে আজ এই পর্যায়ে আসতে এবং প্রতিটি পদক্ষেপ গ্রহনে অসামান্য ও অনস্বীকার্য অবদান রেখেছে।

14724349_1677228722590040_6055723561772961392_n

সন্মানিত উপদেষ্টা মন্ডলীর নাম
★★★★★★★★★★★★★★★★★★

অধ্যাপক ডাঃ এ জেড এম জাহিদ হোসেন- ভাইস চেয়ারম্যান, বি এন পি,

সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স- সাংগঠনিক সম্পাদক, বিএনপি,

ব্যারিস্টার কায়সার কামাল- আইন বিষয়ক সম্পাদক, বি এন ,পি।

এ কে এম ওয়াহিদুজ্জামান- জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সম্পাদক, বি এন ,পি।

শহিদুল ইসলাম বাবুল- সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক, বিএনপি,

কাদের গনী চৌধুরী- তথ্য ও গবেষনা বিষয়ক সহ- সম্পাদক, বি এন পি।

এডঃ শেখ ওয়াহিদুজ্জামান দিপু- সদস্য,জাতীয় নির্বাহী কমিটি , বি এন পি।

স্কোয়াড্রন লীডার ওয়াহিদ – উন – নবী (অবঃ)।

এনামুল হক লিটন – আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক, যুবদল, কেন্দ্রীয় কমিটি।

রাশেদুল হক- সম্পাদক (সংবাদ বিভাগ) দৈনিক দিনকাল।

শফিকুল ইসলাম রিবলু- সহসভাপতি, ছাত্রদল, কেন্দ্রীয় কমিটি।

জিয়া সাইবার ফোর্স এর কার্যনির্বাহী পরিষদ ও পাচ লক্ষাধিক সদস্যের পক্ষ থেকে, সকল সহযোগী সংগঠন এর পক্ষে থেকে আপনাদের কে আন্তরিক অভিনন্দন।

বাংলাদেশ জিন্দাবাদ,
দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া জিন্দাবাদ,
তারুন্যের অহংকার ও দেশনায়ক তারেক রহমান জিন্দাবাদ,
শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান অমর হোক,
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল জিন্দাবাদ।