জঙ্গি সর্বহারা গ্রুপের নাম, ঠিকানাসহ পরিচয় জানুন

0

দীর্ঘদিন যাবত জঙ্গি সর্বহারা রা বারিশাল বাবুজঞ্জ চাঁদ পাশা এলাকায় গুম , হত্যা , নারী নির্যাতন , জোর দখল , করে আসছে । কেউ কোনও প্রতীবাদ করছেনা ও মুখ খুলছে না ।। আর প্রতীবাদ ও মুখ খুললেই জঙ্গি সর্বহারা দের হাতে নির্মম ভাবে খুন হতে হবে , তাদের জমি গুলো জোর করে ষ্ট্যাম্পে সই নিয়া লিখে নিয়া যাবে জোর দখল চালাবে , নারী ও শিশুদের উপর অমানবিক পইচাছিক নির্যাতন চালাবে শেষ মুহূর্তে হত্যা করে খালে বিলে পুকুরে ভাসিয়ে দিবে , অথবা দেহ থেকে গলা আলাদা করে খেত খামারের পাসে রেখে দেবে । এই সর্ব হারা জঙ্গি বাহিনী যখন যে সরকার ক্ষমতায় আসে তারা সেই দলের নাম ভাঙ্গেয়ে সকল অপরাধ অপকর্ম করে নিজেদের বাচাইয়া
রাখে ।
 বরিশাল , বাবুগঞ্জ ,চাঁদ পাশা , বিমান বন্দর থানা , আরজি কালিকাপর , কেদারপুর , দেহেরগতি , খুদ্র কাঠী ,বিমান বন্দর ঘাঁটির চারপাশে প্রভাব বিস্তার করে জালের মতো ছড়ীয়ে আছে এই সকল জঙ্গি সর্বহারা বাহিনী । জঙ্গি সর্বহারা গ্রুপ এর সকল হত্যাকাণ্ড ,গুম,জোর দখল, নারী নির্যাতন সহ সকল অপরাধ সংগঠিত হয় রাতের বেলায় অন্ধকারে । আর হত্যা গুম নারী নির্যাতন করে জঙ্গি সর্বহারারা কোনও প্রকার শারীরিক ও পারিপার্শ্বিক চিহ্ন ও সাক্ষী আলামত রাখে না ।যতোগুলো খুন করেছে জঙ্গি সর্বহারা গ্রুপ রা লাশের শরীরে কোনও প্রকার চিহ্ন নাই । সবাই কে শ্বাস রোধ করে , মুখে কাপড় ঢুকেয় , পলিথিন প্যাঁচেয় , মোটা ভারী কাপড় রেখে বুকের উপরে উঠে সবাই মিলে পদ পিষ্ট করে মেরে পুকুর , নদী , খাল বিল ,ঝোপ , ঝাড় , জঙ্গল , স্কুল কলেজের রুম খোলা মাঠ , ফসলের মাঠ ধান খেত , আঁখ খেত , পাট খেত লাশ রেখে যায় । মৃত্যু জন্ত্রনায় কেউ যদি ছট ফট করে চিৎকার করতে চায় তৎক্ষণাৎ মুখ চেপে ধরে রাখে লাশের , মূখে কোণও পানি ও দেওয়া হয় না লাশের , মৃত মানুষ টা তাঁর নিজের পেটের ভেতর থেকে বেড় হওয়া তাজা রক্ত খাইয়া দুনিয়া কে বিদায় যানায় । লাশের মুখের ভিতর থেকে চীৎকার দেওয়ার বের হওয়া জীব্বহা সামনের দিকে ঝুলানো থাকে আড় জীব্বাহ এর কীছূ অংশ কাটা ঝুলন্ত দাঁতের ফাঁকে আটকে থাকে । লাশের মূখ গলা বুক পেট কালো নীল বর্ণের থাকে । আড় লাশের মুখের ভীতরে রয়ে যায় টাটকা তাজা তাজা রক্ত । কতোটা নির্মম , ভয়ঙ্কর , পেশাধারী এইসব জঙ্গি
সর্বহারা খূণী চক্র !!!!!!!!                   12511796_567952986686664_1643571986_n
খুনের সাক্ষী , চিহ্ন , আলামত নাই বলে প্রশাসন ও আইন তাদের ধরতে পারছেনা । প্রশাসন রাজনীতির গড ফাদারদের হুমকি ধুমকির ভঁয়ে চুপ থাকে সারাজীবন । প্রশাসন হয় হুকুমের গোলাম মাত্র । এই সকল জঙ্গি সর্বহারা রা গড ফাদারদের ছত্র ছায়ায় বড় অঙ্কের টাকায় খুন , হত্তা , জোর দখল , গুম , করে কোটি টাকা কামায় । খালি হয় মা বোন বাবা বউ দের বুক , মৃত মানুষটির পরিবারের কান্নায় আহাজারি তে , বুক ফাটা আর্তনাদে ভারী হয়ে ওঠে সমগ্র এলাকা । জঙ্গি সর্বহারা রা নিজেদের মন মতো গ্রাম্য ডাক্তার ও পুলিশ আগে থেকে এ রেডি করে রাখে । গড ফাদারদের ছত্র ছায়ায় জঙ্গি সর্বহারা গ্রুপ এর দলনেতা রা সরকারি- বে সরকারী স্কুল কলেজে শিক্ষক এবং জন প্রতিনিধি কর্মকর্তা হিসাবে কর্মরত আছেন । বাবুগঞ্জ কলেজের ইতিহাস বিভাগের শিক্ষক ( জঙ্গি সর্বহারা গ্রুপ এর দলনেতা ) মোঃ মকবুল আহাম্মেদ এবং মোঃ খালেক হোসেন স্বপন বাবুগঞ্জ উপজেলায় চেয়ারম্যান ও মোঃ মতিন হাওলাদার (( চেয়ারম্যান ৪ নং চাঁদ পাশা ইউনিয়ন )) ( জঙ্গি সর্বহারা গ্রুপ এর প্রধান দলনেতা ) তার জল জ্যান্ত প্রমান ।
12498852_567953500019946_989707191_n
 এই সর্বহারা জঙ্গি বাহিনী দের এলাকার জন প্রতিনিধি ও চেয়ারম্যান হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করে খুন , হত্যাযজ্ঞ , গুম , নারী নির্যাতন ,জোর দখল , স্ট্যাম্পে জোর পূর্বক সাক্ষর নেওয়া এই সকল লোম হর্ষক ভয়ঙ্কর ঘটনা গুলো ঘটাচ্ছে প্রতিদিন – প্রতিরাত । 5. এলাকার প্রতিটি পরিবার , প্রতিটি মহল্লা , প্রতিটি বাড়ির মৃত মানুষদের প্রিওজন দের বুক ফাটা আর্তনাদ এ ভারী হয় , চাঁপা কান্নায় আর্তনাদ আহাজারি তে , মৃত্যুর মুহূর্তের নির্যাতনের শ্বাস রোধ করা চাঁপা গোঙ্গানিতে , বাঁচার জন্য ব্যাকুল আকুতি ভরা প্রত্যেক রাত । বাবুগঞ্জ , চাঁদ পাশা, আগরপুর , কেদারপুর , মাধপ পাশা , আরজি কালিকাপুর , দেহেরগতি বিমান বন্দর , ব এলাকার প্রত্যেকটি এলাকার বন, জঙ্গল , পুকুরপাড় , নদীর পার , ধান খেত , পাত খেত, আখ খেত, এ লাশ ভেসে উঠে – লাশ পচে উঠে । প্রশাসন কি করবে ? প্রশাসনকে বলা হয় ——-, এই সব ছেলেরা নেশা খোর , নেশা করে মরে পরে আছে ——–। এই সব ব্যাপারে আপনারা পুলিশ কি করবেন ? এই খুনের ব্যাপারে কেউ একটা কথা বলবেন না । আপনারা আপনাদের মতো থানার কর্মকাণ্ড দেখাশুনা করেন । আপনারা যার যার থানায় চলে জান । সাথে এই সব পলিটিকাল ব্যাপারে প্রশাসন কে ধরাইয়া দেওয়া হয় বরিশাল এর মেয়র ও গড ফাদারদের একটা ফোন কল । কাহিনী খতম ।সার্থক ভাবে সম্পন্ন করা হল জঙ্গি সর্বহারা দের সকল কৌশল গত ও রাজনৈতিক দক্ষ ও সুক্ষ কর্ম কাণ্ড । তদন্ত কর্ম কর্তা কে দেওয়া হয় মোটা অঙ্কের টাকা । তদন্ত কর্ম কর্তা তো মোটা টাকা নিয়া মহা খুশী ।আর কি দরকার ?থানার ওসি প্রমোশন নিয়া এ ,এস , পি্‌, হয়ে অন্য জেলায় অন্য থানায় চলে যায় । এ ,এস , পি্‌, চলে যায় অন্য থানা জেলায় এস , পি্‌, হয়ে । বাহ বাহ বাহ- জঙ্গি সর্বহারা গ্রুপের জয় ধ্বনি , সর্বহারা গ্রুপের উন্মুক্ত সম্রাজ্জ আরও উন্মুক্ত করে দেওা হয় …………‌ সাথে উন্মুক্ত করা সকল হত্যা কাণ্ড , খুন , জোর দখল , নারী নির্যাতন , লুট তরাজ সকল এলাকা বাসীর সম্মুখে । কারন এলাকা ও এলাকার আশে পাশের কারও কোনও ক্ষমতা নাই সর্বহারা জঙ্গি দের ব্যাপারে কথা বলার । কথা শেষ । কেউ যদি বাদী হয়ে কোনও প্রকার মামলা করে ……………… জঙ্গি সর্বহারা বাহিনী রাতের বেলা বাদীর বাড়ী এসে বাড়ী ঘেরাও করে ২০০ সদস্য নিয়া এবং সাদা কাগজ সহ ষ্ট্যাম্পে জোর পূর্বক বাদীর ও বাদীর পরিবারের সকলের সাইন নিয়া এবং নিজেদের মন মতো কথা লিখে মনগড়া তদন্ত রিপোর্ট সহ ( সুরাতাল রিপোর্ট ও পোষ্টমরটম ছারা ) আদালতে জমা দিয়া মামলা ডিস মিশ করে দেয়া হয় ।মারহাবা সর্বহারা গ্রুপ ।12442818_565337516948211_1127862366_n
সর্বহারা গ্রুপ জিন্দা বাদ ধ্বনি হয় সকল সর্বহারা গ্রুপ এর কর্মী ও দলনেতা দের । ২/ ৪ টা গরু জবাই করে খাওয়ানো হয় সর্বহারা গ্রুপ এর কর্মী ও দল নে্তাদের । সকল কাজ সফল ভাবে সম্পন্ন করা হলো । জঙ্গি সর্বহারা গ্রুপ কে বাঁচেয় রাখতে কতো আপ্রান চেষ্টা , কতো মেজবান খাওয়ানো , কতো টাকা ঢেলে দেওয়া , কতো নিরীহ শিক্ষিত বুদ্ধিজীবী হত্যা করা , কতো শারীরিক নির্যাতন এবং নির্যাতনের পর খুন , কতো জমি দখল , কতো মামলা মুকাদ্দমা ( সাদা কাগজ অ ষ্ট্যাম্পে সই নিয়া ) ডিস মিশ করার জন্যন———— কতো গড ফাদার কত এম , পি , মন্ত্রী , মেওর্‌ , বড় ভাই , মন্ত্রী এর পি , এস ,… সচিব দের সুপারিশ ও ফোন কল কাজে লাগানো হয় তার হিসাব করা সম্ভব নয় ।এ সকল কর্মকাণ্ডের একমাত্র উদ্দেশ্য হোল সর্বহারা গ্রুপ কে সুদুর বিস্তৃত ও শক্তিশালী করা , দীর্ঘজীবী করা । সর্বহারা দের সকল ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড গোপনীয় তা সহকারে ধামা চাঁপা দেওয়া । সর্বহারা দের নতুন নতুন শাখা প্রশাখা বিস্তার অ শক্তিশালী করে অত্যাধুনিক অস্র সহ আর্থিক সাহায্য ও গ্রুপের উন্নয়ন করা হয় । বিদেশি অস্রের যোগান ও অস্রের ট্রেনিং করানো হয় । অস্র রাখার নির্দিষ্ট ও গোপনীয় এলাকা বাড়ী পুকুর জঙ্গলে সর্বহারাদের সকল অস্র ও সরঞ্জাম লুকিয়ে রাখা হয় । পুলিশ ও থানা প্রশাসনকে অল্প কিছু অস্র জমা দিয়া সর্বহারা গ্রুপের আত্মসমর্পণ এর অভিনয় ও নাটক সাজানো হয় জনগন রাষ্ট্র তথা প্রশাসন এর সামনে । তাই আমরা যারা এলাকার শিক্ষিত অ সচেতন নাগরিক তারা সকলে আজ এই সর্বহারা গ্রুপের হাতে জিম্মি অবস্থায় বসবাস করতে রাজি না । আর কত দিন সহ্য করবো ? কত দিন ? কত রাত ? কত বছর ? সহ্য করার একটা সীমা পরিসীমা থাকে । সব কিছু অতিক্রম করে জঙ্গি সর্বহারা বাহিনী রা অন্যায় অপরাধ ধ্বংসের সর্বশেষ এ পৌঁছে গেছে । মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কে বিশেষভাবে ও আন্তরিক ভাবে এই দেশ বিধ্বংসী জঙ্গি সর্বহারা গ্রুপ কে দ্রুত চিরতরে নির্মূল ও উচ্ছেদ প্রসঙ্গে সূ দৃষ্টি দেওয়ার জন্য এবং খুব দ্রুত সকল প্রকার আইনগত ও প্রশাসনিক ভাবে উচ্চতরও ও বলিষ্ঠ পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য আকুল আবেদন জানাচ্ছি । দেশের আপামর জনসাধারণ কে এই জঙ্গি সর্বহারা গ্রুপের বিরুদ্ধে স্বেচ্ছার ঐক্য বদ্ধ হয়ে কাজ করা র জন্য উদ্দীপ্ত ও সচেতন করা উচিৎ । চিরতরে জঙ্গি সর্বহারা গ্রুপ কে নির্মূল ও প্রতিহত করা উচিৎ আমাদের সকলের সন্মিলিত প্রচেষ্টায় । সর্বোপরি দেশ কে জনগন কে বাঁচানোর স্বার্থে , কঠিন ও সুদীপ্ত হাতে বিশ্বের দরবারে দেশ ও জাতি কে জঙ্গি সর্বহারা মুক্ত করে কলঙ্ক মুক্ত জাতি হিসেবে সম্মানিত স্থানে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য বিনিত প্রার্থনা জানাচ্ছি ।
জঙ্গি সর্বহারা গ্রুপের সংক্ষিপ্ত তালিকা
 ১ ) মোঃ খালেক হোসেন স্বপন , পিতাঃ মৃত কাসেম আলী সরদার , সাং ঠাকুর মল্লিক ( জাহাঙ্গির নগর এউনিওন ), থানাঃ বাবুজঞ্জ , উপজিলা – বাবুজঞ্জ , জিলাঃ বরিশাল । মোবাইলঃ ০১৮২৪২৬৩৪০৩ । ২ ) মোঃ আক্তারুজ্জামান মিলন , পিতাঃ মোঃ আতাহার আলী মৃধা ।সাং – লো হালিয়া , থানাঃ বাবুজঞ্জ , জেলাঃ বরিশাল । মোবাইলঃ ০১৭১২৭৫০৩৫১ । ৩ )আঃ খালেক হাওলাদার , পিতাঃ মৃত কদম আলী , গ্রামঃ ঘটকের চর , পোঃ চাঁদ পাশা, থানাঃ বিমান বন্দর , জিলাঃ বরিশাল । ( মরহুম রাঙ্গা মিজানের বাড়ি এর ) ৪) স্বপন হাওলাদার , পিতাঃ )আঃ খালেক হাওলাদার গ্রামঃ ঘটকের চর , পোঃ চাঁদ পাশা, থানাঃ বিমান বন্দর, জিলাঃ বরিশাল । ( মরহুম রাঙ্গা মিজানের বাড়ি এর )। ৫) আমিনুল হক , আকন বাড়ি , সাং- আরজি কালিকাপুর , পোঃ চাঁদ পাশা ।থানাঃ বিমান বন্দর , জিলাঃ বরিশাল , মবাইলঃ০১৭৫৬৬৮৪২৮৬ । ৬)নুরে আলম ( বালুর ঠিকাদার ) কেদারপুর , থানাঃ বাবুগঞ্জ , জিলাঃ বরিশাল । মোবাইলঃ ০১৭৪০৬২৯৫৩৩ । ৭) মোঃ মতিন হাওলাদার , পিতাঃ মৃতঃ আলী আহাম্মেদ , সাং- আইচার হাওলা ,থানাঃ বিমান বন্দর , বি,এম, পি, বরিশাল।(চেয়ারম্যান ৪ নং চাঁদ পাশা ইউনিয়ন পরিষদ ), জিলাঃ বরিশাল । ৮)লিয়াকত আলী , পিতাঃ মৃতঃ আবুল কাসেম হাওলাদার , গ্রামঃ ঘটকের চর , পোঃ চাঁদ পাশা ।থানাঃ বিমান বন্দর , জিলাঃ বরিশাল । ৯)লিয়াকত আলীর মেয়ে ফরিদার স্বামী , গ্রামঃ ঘটকের চর , পোঃ চাঁদ পাশা ।থানাঃ বিমান বন্দর , জিলাঃ বরিশাল । ১০) লিয়াকত আলীর মেয়ে রানির স্বামী , গ্রামঃ ঘটকের চর , পোঃ চাঁদ পাশা ।থানাঃ বিমান বন্দর , জিলাঃ বরিশাল । ১১)লিয়াকত আলীর মেয়ে রুমির স্বামী , গ্রামঃ ঘটকের চর , পোঃ চাঁদ পাশা ।থানাঃ বিমান বন্দর , জিলাঃ বরিশাল । ১২) আলো , পিতাঃ লিয়াকত আলী , গ্রামঃ ঘটকের চর , পোঃ চাঁদ পাশা ।থানাঃ বিমান বন্দর , জিলাঃ বরিশাল । ১৩)কালাম , পিতাঃ লিয়াকত আলী , গ্রামঃ ঘটকের চর , পোঃ চাঁদ পাশা ।থানাঃ বিমান বন্দর , জিলাঃ বরিশাল । ১৪) সালাম , পিতাঃ লিয়াকত আলী , গ্রামঃ ঘটকের চর , পোঃ চাঁদ পাশা ।থানাঃ বিমান বন্দর , জিলাঃ বরিশাল। ১৫) ফারুক , পিতাঃ লিয়াকত আলী , গ্রামঃ ঘটকের চর , পোঃ চাঁদ পাশা ।থানাঃ বিমান বন্দর , জিলাঃ বরিশাল। ১৬) নুরু , পিতাঃ আমজেদ হাওলাদার , গ্রামঃ ঘটকের চর , পোঃ চাঁদ পাশা ।থানাঃ বিমান বন্দর , জিলাঃ বরিশাল । ১৭) আতাহার হাওলাদার , পিতাঃ মৃতঃ কাসেম হাওলাদার , গ্রামঃ ঘটকের চর , পোঃ চাঁদ পাশা ।থানাঃ বিমান বন্দর , জিলাঃ বরিশাল । ১৮) সিরাজ উদ্দিন আহাম্মেদ , ফকির বাড়ি , গ্রামঃ আরজি কালিকাপুর ,থানাঃ বিমান বন্দর , জিলাঃ বরিশাল। ১৯) শাহারিয়ার শিল্পী , পিতাঃসিরাজ উদ্দিন আহাম্মেদ , ফকির বাড়ি , গ্রামঃ আরজি কালিকাপুর ,থানাঃ বিমান বন্দর , জিলাঃ বরিশাল। 12435693_565336456948317_1659838366_n২০) মোঃ মকবুল আহাম্মেদ ,( বাবুগঞ্জ কলেজের ইতিহাস বিভাগ এর প্রোফেসর ), ফকির বাড়ি , গ্রামঃ আরজি কালিকাপুর ,থানাঃ বিমান বন্দর , জিলাঃ বরিশাল। ২১) সাহা আলম , বড় ভাই সিরাজ উদ্দিন আহাম্মেদ , ফকির বাড়ি , গ্রামঃ আরজি কালিকাপুর ,থানাঃ বিমান বন্দর , জিলাঃ বরিশাল। ২২) কিবরিয়া , পিতাঃ মৃতঃ গফুর দারগা , গ্রামঃ আরজি কালিকাপুর ,থানাঃ বিমান বন্দর , জিলাঃ বরিশাল। ২৩) তানিয়া আক্তার তমা ওরফে তমা শিকদার , পিতাঃ মৃতঃ ডাক্তার আজাহার উদ্দিন , সাহা পাড়া , ভাটিখানা , থানাঃ কাউনিয়া , জিলাঃ বরিশাল । ২৪) রনি , (তানিয়া আক্তার তমা ওরফে তমা শিকদার এর ছোটো ভাই ) , পিতাঃ মৃতঃ ডাক্তার আজাহার উদ্দিন , সাহা পাড়া , ভাটিখানা , থানাঃ কাউনিয়া , জিলাঃ বরিশাল । ২৫ ) মোঃ সিরাজুল হক পিতাঃ মৃতঃ আজিজ হাওলাদার , সাং- আরজি কালিকাপুর , পোঃ চাঁদ পাশা , থানাঃ বিমান বন্দর জিলাঃ বরিশাল ।
 সম্পাদনা : মোহাম্মদ মঈনুল ইসলাম