জংগীবাদ নিয়ে সরকারের এহেন মিথ্যাচারিতা হতাশাজনক- বি এন পি

0

জিসাফো নিউজ ডেস্কঃবিএনপি বলেছে, দেশে জঙ্গিবাদ নিয়ে কয়েকজন মন্ত্রীসহ সরকারের বিভিন্ন পর্যায় থেকে যে প্রচার চালানো হয়েছে, অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর অনিশ্চয়তার পেছনে তার প্রভাব পড়েছে। এতে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে। গতকাল সোমবার নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের মুখপাত্র আসাদুজ্জামান রিপন এসব কথা বলেন। 

বিএনপির এই নেতা বলেন, নিরপেক্ষ সরকারের অধীন একটি নতুন নির্বাচনের দাবি অগ্রাহ্য করতে বিনা ভোটের বর্তমান সরকার ‘ধর্মীয় উগ্রপন্থাকে ঠেকানোর জন্য ব্যস্ত’—এমন ধারণা দিয়ে পশ্চিমাদের সহানুভূতি নেওয়ার অপচেষ্টা লক্ষ করা গেছে। তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুসহ কয়েকজন মন্ত্রী দেশে জঙ্গিবাদের যে জিকির তুলেছিলেন এবং বিভিন্ন সময়ে জঙ্গি ধরা ও তথাকথিত উগ্রবাদী বইপুস্তক উদ্ধারের যে কাহিনি সময়ে সময়ে প্রচারিত হয়েছে, তার ফলে বাংলাদেশ সম্পর্কে একটি আস্থাহীনতা ও আশঙ্কার পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। 
আসাদুজ্জামান বলেন, ‘আমরা বরাবরই বলে আসছি, এ ধরনের প্রচার (প্রোপাগান্ডা) একপর্যায়ে দেশের ইমেজকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে এবং বাস্তবে হয়েছেও তাই। অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটের নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ দলকে এ প্রচার প্রভাবিত করেছে বলে আমরা মনে করি।’ আসাদুজ্জামান বলেন, ‘বাংলাদেশের মানুষ মনে করে এ দেশে জঙ্গিবাদ ও ধর্মীয় উগ্রবাদের কোনো অস্তিত্ব নেই। বাংলাদেশ নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্র ও বাণিজ্য-বিষয়ক অধিদপ্তরের পর্যবেক্ষণ প্রকৃত তথ্যভিত্তিক নয়। এ প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্র ও বাণিজ্যমন্ত্রী নিরাপত্তা প্রশ্নে যা বলেছেন, তার সঙ্গে আমরা একমত।’
জঙ্গিবাদ নিয়ে প্রোপাগান্ডা সৃষ্ট নেতিবাচক ধারণা কাটাতে সরকারকে পরামর্শ দেন বিএনপির এই নেতা। তিনি বলেন, বাংলাদেশ সম্পর্কে অস্ট্রেলীয় সরকারের পর্যবেক্ষণ কিছু চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার প্রশ্ন উঠে এসেছে। তা হলো, অবিলম্বে বাংলাদেশকে একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র হিসেবে নতুন করে ব্র্যান্ডিং করা। এর জন্য সরকার ও বিরোধী দলগুলোকে একযোগে কাজ করতে হবে। 
আসাদুজ্জামান বলেন, ‘দিনক্ষণ, ভেন্যু, সবকিছুই যখন ঠিকঠাক, তখন “নিরাপত্তা নেই”—এ প্রশ্নে সফর অনিশ্চিত হওয়ায় আমরা উদ্বিগ্ন এবং ক্রিকেটপ্রেমী হিসেবে খুব দুঃখ পেয়েছি।’