গ্রীসে ফের নৌকাডুবি: নিহত ২২

0

ঢাকা: গ্রিসের এজিয়ান সাগরের উপকূলে নৌকা ডুবে ২২ শরণার্থীর মৃত্যু হয়েছে। ওই দুর্ঘটনায় উপকূলরক্ষীরা ১৩৮ শরণার্থীকে জীবিত উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে। নিহতদের মধ্যে চার নবজাতক এবং নয় জন শিশু ছিল। উপকূলরক্ষীরা শুক্রবার জানিয়েছে, তুরস্ক থেকে আসার সময় এজিয়ান সাগরের কাছে নৌকাডুবির ঘটনাটি ঘটেছে।

এজিয়ান সাগরে এই দুর্ঘটনাটির জন্য বৈরী আবহাওয়াকেই দায়ী করা হচ্ছে। হাজার হাজার শরণার্থী নৌকায় করে তুরষ্ক থেকে গ্রীসের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছিল। কিন্তু আবহাওয়া খারাপ হওয়ায় এবং সমুদ্র উত্তাল হওয়ায় বেশ কয়েকবারই নৌকাডুবির ঘটনা ঘটেছে। এর আগে বুধবার রাতে লেসবস দ্বীপের কাছে একটি কাঠের নৌকা ডুবে যাওয়ার পর ১৬টি মৃতদেহ এবং ২৭৪ জনকে জীবিত উদ্ধার করেছিল উপকূলরক্ষীরা।

মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশ বিশেষ করে সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধের কারণে এবছর ৫০ হাজারের বেশি মানুষ গ্রিস হয়ে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে প্রবেশের চেষ্টা করছে।

এদিকে বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর জানিয়েছে, বিরূপ আবহাওয়ার কারণে মানবপাচারকারীরা টিকেটের দাম অর্ধেকের বেশি কমিয়ে দিয়েছিল। তারা অসহায় মানুষদের প্রলোভন দেখিয়ে বিপদের দিকে ঠেলে দিচ্ছে।

ধারণা করা হয়, কাঠের একটি নৌকায় করে সমুদ্র পার করিয়ে দেয়ার জন্য মানবপাচারকারীরা মাথাপিছু ১৮০০ থেকে ২৫০০ ইউরো করে নেয়। আর শরণার্থীরা এসব দালালদের হাত ধরে নিজেদের জীবনকে বাজি রেখে সাগরে পাড়ি জমাচ্ছে।