গোলাম রাব্বির মানসিক অবস্থা নিয়ে চিকিৎসকদের উদ্বেগ

0

জিসাফো ডেস্কঃ পুলিশের হাতে নির্যাতিত, ৫ বোনের একমাত্র ভাই, বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তা গোলাম রাব্বির মানসিক স্বাস্থ্যের অবস্থা নিয়ে চিকিৎসকরা বেশি উদ্বিগ্ন। তারা বলছেন- শারিরীক সমস্যা বিশ্রাম- ওষুধ সেবনে ঠিক হবে অল্প সময়ে। কিন্তু মানসিকভাবে যে আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছেন, সেটা ঠিক হওয়া লম্বা সময়ের ব্যাপার।

বুধবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ১০২ নং ওয়ার্ডে দেখা যায় রাব্বিকে। তার পাশে ছিলেন তারই ব্যাচ মেইট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার্স ( ইতিহাস) এর শিক্ষার্থী তিশা। আরও ছিলেন- এ বিশ্ববিদ্যালয়েরই শিক্ষার্থী রাব্বির বন্ধু তারিকুল, নজরুলসহ অনেকেই।

তারিকুল বলেন, চিকিৎসক আজ সকালে দেখে গেছেন। তিনি বলে গেছেন, মানসিক সমস্যাটাই বেশি সমস্যা। এছাড়া মাথার আঘাতও আরেকটি বড় চিন্তার বিষয়। মঙ্গলবার রাতে ঘুমের ওষুধেও রাব্বির ঘুম হয়নি ঠিকভাবে। কিছুক্ষণ পরপরই বাচ্চাদের মতো কেঁদে বাঁচার আকুতি জানায়। কথা বললে বলতে থাকে- আমি মনে হয় স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারব না।

দেখা যায়, রাব্বি বেডে শুয়ে থাকলেও যন্ত্রণায় ছটফট করছিলেন। বারবার বালিশ থেকে তার মাথা পড়ে যাচ্ছিল।পরিবেশগত কারণে আজ দুপুরেই রাব্বিকে কেবিনে স্থানান্তরের কথা রয়েছে বলে জানা গেছে।

গোঙাতে গোঙাতে এ প্রতিবেদককে তিনি বলছিলেন, সাংবাদিক থাকাবস্থায় এমন ঘটনা শুনেছি, পড়েছি। কিন্তু বাস্তব এতো ভয়ংকর ভাবতেও পারিনি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগ থেকে পাশ করা রাব্বি সময় টেলিভিশনে ৫ বছর সংবাদ উপস্থাপকের কাজ করেছিলেন। বর্তমানে তিনি দৈনিক যুগান্তর ও জাগোনিউজ২৪.কমে লিখালিখি করছেন। দৈনিক প্রথম আলোতেও তিনি একসময় লিখতেন বলে জানান রাব্বির একজন বন্ধু।

তার গ্রামের বাড়ি মাদারীপুরের কালকিনি। বাবা-মা সেখানেই রয়েছেন। তারিকুল বলেন, তারা আসতে চান, কিন্তু আমরা চাচ্ছি না। আমরাতো আছিই রাব্বির পাশে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ওর সঙে পরিচয়ের পর থেকে আমরা সুখে-দুখে, আপদে-বিপদে একসঙেই থেকেছি। আমাদের সার্কেলটাই এমন।