গণমাধ্যম কে নিয়ন্ত্রনে সরকার মরিয়া হয়ে কুট কৌশল অবলম্বন করছে

0

সংবাদপত্রের অপ্রকাশ্য নীতি ও গোপন কৌশল অবলম্বন করে ক্ষমতাসীনরা গণমাধ্যম নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। একই সঙ্গে দলটি গণমাধ্যমের নিপীড়ন ও নির্যাতনমূলক গণবিরোধী আইন বাতিলের জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানিয়েছে।

সোমবার দুপুরে নয়াপল্টন বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন এ অভিযোগ করেন।

আসাদুজ্জামান রিপন অভিযোগ করেন, দেশের শীর্ষ পত্রিকাগুলোর বিজ্ঞাপন বন্ধ করে দিয়ে ক্ষমতানসীরা গণমাধ্যম বন্ধ করার অপচেষ্টা করছে। শুধু তাই নয়, গণমাধ্যমের সংবাদকর্মী ও সম্পাদকদের নামে মানহানিকর মামলা করে তাদের পেশাগত কাজে সরকার বাধা সৃষ্টি করছে। যা স্বাধীন গণমাধ্যম বিকাশের ক্ষেত্রে বাধা সৃষ্টি হচ্ছে।

তিনি বলেন, গণমাধ্যমের সকল অভিযোগ আগে প্রেস কাউন্সিলে তোলা হত। কিন্তু বর্তমান প্রেস কাউন্সিলকে এড়িয়ে চলা হয়। তিনি অবিলম্বে সাংবাদিকেদর উপর নিপীড়ন ও নির্যাতনের আইন বাতিলের দাবি জানান। এবং প্রেস কাউন্সিলকে স্বচ্ছ করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

বিএনপির এ নেতা বলেন, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল ইনু তথ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব গ্রহণ করার পর থেকেই সাংবাদিকদের উপর নির্যাতনের মাত্রা বৃদ্ধি পেয়েছে। সাংবাদিকদের দমন করার জন্য এমন কোনো কাজ নেই যা তিনি করেননি। হাসানুল হক ইনুর গণমাধ্যম বিরোধী সকল কর্মকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানান তিনি।

সরকারকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, অবিলম্বে আমার দেশ পত্রিকাসহ সকল বন্ধ গণমাধ্যম খুলে দিন। এবং মাহমুদুর রহমানসহ সকল বন্দি সাংবাদিকেদর মুক্তি দিয়ে স্বাধীন গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠা করতে সহযোগিতা করুন। আর ব্যত্যয় ঘটলে বোঝা যাবে আপনাদের কথার সঙ্গে কাজের কোনো মিল নেই।

এ সময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, যুব বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, মহিলা দলের সভাপতি নূরে আরা সাফা প্রমুখ