খাদিজার সাক্ষ্যগ্রহণের পর বিচারক যুক্তিতর্কের জন্য আগামী ১ মার্চ ধার্য করেন

0

জিসাফো ডেস্কঃ সিলেটে সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রী খাদিজা আক্তার নার্গিস হত্যাচেষ্টা মামলার যুক্তিতর্কের তারিখ নির্ধারণ করেছেন আদালত। রোববার দুপুরে সিলেটের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুজ্জামান হিরোর আদালতে ভিকটিম খাদিজার সাক্ষ্যগ্রহণের পর বিচারক যুক্তিতর্কের জন্য আগামী ১ মার্চ ধার্য করেন।

আদালতের এপিপি মাহফুজুর রহমান বলেন, খাদিজা হত্যাচেষ্টা মামলায় মোট ৩৩ সাক্ষীর মধ্যে ৩২ জন আগেই সাক্ষ্য দিয়েছেন। রোববার ভিকটিম খাদিজার সাক্ষ্য নেওয়ার পর আসামিপক্ষ সাফাই সাক্ষী দেবে না বলে সিদ্ধান্ত জানালে বিচারক যুক্তিতর্কের তারিখ ধার্য করেন। এর আগে সকাল ১০টা ৪০ মিনিটে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে আদালতে যান খাদিজা। সকাল ১১টায় বিচারকের সামনে বদরুলকে চিহ্নিত করে তার বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেন খাদিজা। ঘটনার ৩ মাস ২২ দিন পর সুস্থ হয়ে আদালতে হামলাকারীর বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেন তিনি।

গত বছরের ৩ অক্টোবর এমসি কলেজে খাদিজা আক্তার নার্গিসকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক বদরুল আলম। ঘটনার পরপরই শিক্ষার্থীরা বদরুলকে আটক গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেন।
এ ঘটনায় খাদিজার চাচা আবদুল কুদ্দুস বাদী হয়ে বদরুলকে একমাত্র আসামি করে মামলা করেন। ৫ অক্টোবর বদরুল আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত। এছাড়ার ঘটনার পর শাবি থেকে চিরতরে বহিষ্কার করা হয় বদরুলকে।

ছাত্রলীগ নেতা বদরুল আলমের চাপাতির কোপে গুরুতর আহত হওয়া খাদিজাকে প্রথমে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও পরে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। কিছুটা সুস্থ হওয়ার পর ২৮ নভেম্বর সাভারে সিআরপিতে স্থানান্তর করা হয় খাদিজাকে। প্রায় তিন মাস সেখানে চিকিৎসাধীন থাকার পর শুক্রবার সুস্থ হয়ে সিলেটে নিজের বাড়িতে ফেরেন খাদিজা।