ওবামা – মোদী বৈঠক, নিরাপত্তা পরিষদে স্থান ও বিদ্যুৎ খাতে যুক্তরাষ্ট্রকে পাশে চায় ভারত

0

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তার যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষ করার আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সঙ্গে বৈঠক করেছেন। প্রেসিডেন্ট ওবামা বৈঠক শেষে বলেন তাদের আলোচনায় যে বিষয়টি প্রাধান্য পেয়েছে তা হল প্যারিসে আসন্ন জলবায়ু সম্মেলন। প্রধানমন্ত্রী মোদি বলেন, বৈঠকে উভয় পক্ষই জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় কার্যকরী কিছু জাতীয় এজেন্ডা গ্রহণের প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়েছেন।

চলতি বছরের শেষের দিকে প্যারিসে জলবায়ু পরিবর্তন চুক্তি স্বাক্ষরের ক্ষেত্রে ভারতের অবস্থানকেই মূখ্য এবং জোরালো বলে মনে করেছেন বিশেষজ্ঞরা। কার্বন নিঃসরণকারী দেশ হিসেবে চীন এবং যুক্তরাষ্ট্রের পরেই ভারতের অবস্থান। নরেন্দ্র মোদি ক্ষমতায় আসার পর প্রেসিডেন্ট ওবামার সাথে এটি তার পঞ্চম বৈঠক।

বৈঠক শেষে এক বিবৃতিতে ওবামা বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র আসন্ন প্যারিস জলবায়ু সম্মেলনে ভারতের নেতৃত্বকে অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করে।’ তিনি আরও বলেন ভারতের নেতৃত্বে আসন্ন সম্মেলনের ফলাফল শুধুমাত্র একদিনের জন্য নয় বরং এটা দশকের পর দশকের জন্য। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও তার বিবৃতিতে বলেন, যদিও দুটি দেশই জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক আপোসহীন প্রতিশ্রুতিতে অঙ্গীকারবদ্ধ কিন্তু তিনি সচেতনভাবেই উল্লেখ করেছেন তা যেন ভারতীয়দের উন্নয়ন আকাঙ্খা পূরণে তাদের ক্ষমতাকে প্রভাবিত করতে না পারে। মোদি যুক্তি দেখান এখন পর্যন্ত ভারতের মোট জনসংখ্যার প্রায় ২০ ভাগই বিদ্যুৎ সুবিধা থেকে বঞ্চিত এবং তাদের বিদ্যুৎ সুবিধা গ্রহণের অধিকার রয়েছে।

এই বছরের শুরুর দিকে, ভারতের পরিবেশ মন্ত্রী প্রকাশ জাভেদিকার বিবিসিকে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলেন কার্বন নির্গমনের জন্য নির্দিষ্ট একটি বছর ঘোষণা করার ক্ষেত্রে চীন এর নেতৃত্ব অনুসরণ করার কোনো পরিকল্পনাই নেই ভারতের। এদিকে মোদি ‘পরিষ্কার এবং টেকসই শক্তির’ ক্ষেত্রেও তার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেছেন।

ভারতের পক্ষ থকে অপর এক বিবৃতিতে বলা হয় প্রধানমন্ত্রী মোদি জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী আসন লাভের ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের সাহায্য প্রত্যাশী।