এবার বিক্ষোভে নামল মেডিকেল শিক্ষার্থীরা : আটক ৪

0

জিসাফো নিউজ ডেস্কঃ মেডিকেলে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের মানববন্ধনে বাধা দিয়েছে পুলিশ। জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘প্রশ্ন ফাঁসের’ অভিযোগে ভর্তি পরীক্ষার ফল বাতিলের দাবিতে মানববন্ধনে দাঁড়ালে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের ধাওয়া দেয় পুলিশ। এ সময় চারজনকে আটক করা হয়। গতকাল সোমবার সকাল ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।  শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বকর সিদ্দিক জানান, মেডিকেল কলেজগুলোতে ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল বাতিলের দাবিতে সকালে প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনের চেষ্টা করছিল শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। যেহেতু বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যে উচ্চ আদালতে রিট করা হয়েছে তাই বিচারাধীন বিষয় নিয়ে কেউ রাস্তায় নামতে পারেন না। তাছাড়া মানববন্ধন করার পূর্ব অনুমতি নেয়নি তারা। ওসি জানান, তাদের নিষেধ করার পরও মানববন্ধনের চেষ্টা করে শিক্ষার্থীরা। তাই তাদের সেখান থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। এ সময় চারজনকে আটক করে থানায় আনা হয়। তবে আটকদের নাম-পরিচয় নিশ্চিত করা হয়নি।

1_Medicale

গত শুক্রবার সারা দেশে ৪৪টি কেন্দ্রে সরকারি-বেসরকারি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজগুলোর সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেয় প্রায় ৮৩ হাজার শিক্ষার্থী। রবিবার স্বাস্থ্য অধিদফতর এই পরীক্ষার যে ফলাফল ঘোষণা করেছে, তাতে ভর্তির যোগ্য শিক্ষার্থী পাওয়া গেছে ৪৮ হাজার ৪৪৮ জন। আসন কম হওয়ায় এদের মধ্যে ১১ হাজার ৪৯ জন শেষ পর্যন্ত ভর্তি হওয়ার সুযোগ পাবেন। : ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়ার অভিযোগ তুলে কয়েকদিন ধরে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ করেছেন পরীক্ষার্থীরা। গতকাল সোমবারও বিভিন্ন স্থানে কর্মসূচি পালন করছে শিক্ষার্থীরা। : এদিকে ভর্তি পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে রবিবার হাই কোর্টে একটি রিট আবেদন করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইউনুছ আলী আকন্দ। : প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশনা চেয়ে রিট আবেদন করা হয়। সঙ্গে রুল ও নির্দেশনা চাওয়া হয়। তবে রিটটি খারিজ করেছেন আদালত। : রিটে স্বরাষ্ট্র সচিব, আইন সচিব, স্বাস্থ্য সচিব, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক ও পরিচালক, পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি), র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক, দুর্নীতি দমন কমশন (দুদক), ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার ও শেরেবাংলা নগর থানার ওসিসহ সংশ্লিষ্ট ১১ জনকে বিবাদী করা হয়। : মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা বাতিল চেয়ে করা রিট খারিজ : মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজের ভর্তি পরীক্ষা ফাঁস হওয়া প্রশ্নপত্রে অনুষ্ঠিত হয়েছে অভিযোগ এনে তা বাতিল চেয়ে করা রিট খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। গতকাল সোমবার বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচারপতি জে এন দেব চৌধুরীর সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। : এর আগে রবিবার সকালে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিট আবেদনটি করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইউনুছ আলী আকন্দ। রিটে স্বরাষ্ট্র সচিব, আইন সচিব, স্বাস্থ্য সচিব, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক ও পরিচালক, পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি), র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক, দুর্নীতি দমন কমশন (দুদক), ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার ও শেরেবাংলা নগর থানার ওসিসহ সংশ্লিষ্ট ১১ জনকে বিবাদী করা হয়। : আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ জানান, শনিবার দুপুরে কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে মন্ত্রিপরিষদ সচিব, আইন সচিব ও স্বাস্থ্য সচিব বরাবরে ১৮ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত ওই পরীক্ষা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বাতিলের জন্য লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে। আইনি নোটিশে প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ তদন্তে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়ে পরবর্তীতে নতুন করে ভর্তি পরীক্ষা নিতে বলা হয়েছে। : তার দাবি, ফাঁস হওয়া প্রশ্নপত্রের সঙ্গে মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজের ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের মিল পাওয়া গেছে। নোটিশ অনুযায়ী ব্যবস্থা না নেয়ায় তিনি রিট আবেদন করেছিলেন। : এর আগে প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ এনে শুক্রবার অনুষ্ঠিত মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা বাতিল করে আবার পরীক্ষা নেয়ার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন, মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করে পরীক্ষায় অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা। শনিবার ঢাকা, বরিশাল, সিলেট ও ময়মনসিংহে এসব কর্মসূচি পালন করেন তারা। এরমধ্যেই রবিবার মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে।