আ’লীগ আসুক বা না আসুক রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিএনপি জাতির সঙ্গে ঐক্য করতে চায়

0

জিসাফো ডেস্কঃ রোহিঙ্গা ইস্যুতে আওয়ামী লীগ আসুক বা না আসুক বিএনপি জাতির সঙ্গে ঐক্য করতে চায় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান। বলেছেন, ‘রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিএনপি আওয়ামী লীগকে জাতীয় ঐক্যের কথা বলেছিল, তারা জাতীয় ঐক্য চায় না। তারা আসুক বা না আসুক বিএনপি জাতির সঙ্গে এই ইস্যুতে ঐক্য করতে চায়।’

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এসব কথা বলেন। খালেদা জিয়ার দশম কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করে বাংলাদেশ ইয়ুথ ফোরাম নামের বিএনপিপন্থি একটি সংগঠন। আলোচনা সভায় বিএনপির আরেক ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদুও বক্তব্য দেন।

আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেন, ‘রোহিঙ্গা সংকট ত্রিমুখী সমস্যা, এটা আমরা আগেই বলেছি। এই সমস্যার সমাধানের জন্য দেশের সব মানুষের মধ্যে জাতীয ঐক্য গঠন করে কৌশল গ্রহণ করা প্রয়োজন। কিন্তু সরকার এটাকে বিদ্রুপ করেছে। আমরা বলতে চাই বিএনপি সরকারের সঙ্গে আলোচনা করতে চায় না, রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে জাতির সঙ্গে ঐক্য করতে চায়। সেই ঐক্যে আওয়ামী লীগ আসুক বা না আসুক জাতির সঙ্গে বিএনপি ঐক্য করবে।’

রোহিঙ্গা সমস্যার সহজে সমাধান হবে না উল্লেখ করে নোমান বলেন, ‘এটা কঠিন একটি সমস্যা, এই সমস্যার সমাধান আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সম্ভব। রোহিঙ্গা সমস্যা দ্বিপক্ষীয়ভাবে সমাধান সম্ভব নয়। কিন্তু সরকার এই সংকট বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরতে ব্যর্থ হয়েছে। এ বিষয়ে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে কোনো প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়নি।’

প্রধানমন্ত্রী যা বলেন তা তিনি করেন না দাবি করে বিএনপির আরেক ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ১৬ টাকার চাল দশ টাকায় খাওয়ানোর কথা বলেছিল। সেই চাল আজ ৭০ টাকা দরে খাচ্ছে জনগণ। প্রধানমন্ত্রী খাদ্য নিরাপত্তার কথা বলেছিলেন, কিন্তু আজ দেশে নীরব দুর্ভিক্ষ চলছে। আসলে প্রধানমন্ত্রী যা বলেন তা তিনি করেন না, আর তিনি যা করেন তা কখনো বলেন না।’

প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনা করে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘বাংলাদেশের ইতিহাসে অপশাসনের একমাত্র ব্যক্তি শেখ হাসিনা, দেশের সমস্ত সংকটের মুলে তিনি। তিনি যদি সরে যান, পদত্যাগ করেন অথবা ছুটি নেন, তবেই দেশে একটি সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব। আর তিনি যদি সত্য বলতেন তাহলে দেশে এত গুম খুন হতো না।’

দুদু বলেন, ‘সবকিছু থেকে মুক্তি পাবে যদি বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে দেশে সরকার প্রতিষ্ঠা করা যায়। তিনি প্রতিহিংসার রাজনীতি করবেন না বলেছেন। তারেক রহমানকে আসতে দেন, তিনি খারাপ করলে জনগণই তার বিচার করবে। আর আওয়ামী লীগ যদি খারাপ করে এর বিচারও জনগণই করবে। কিন্তু আইনের মারপ্যাচে যেটা করছেন তা ঠিক না। এ দেশে স্বৈরাচারের টিকে থাকার কোনো রেকর্ড নেই, ফ্যাসিবাদের পতন অনিবার্য।’