আবু সুফিয়ান’ এর সাথে নাঃগঞ্জ সিটি মেয়র প্রার্থী ‘সেলিনা হায়াৎ আইভি’র কি সম্পর্ক ?

0

মতিউর রহমান রেন্টু বলে গেছেন রাতের পর রাত শেখ হাসিনার বাড়িতে বন্ধু বান্ধব নিয়ে মদ তাস আড্ডায় মেতে থাকা মৃনাল কান্তি দাসের ইতিহাস, হাসিনা মৃনালের অবৈধ সম্পর্ক একান্তভাবে বসবাস। এখন আবার ‘আইভি-সুফিয়ান’ কেলেঙ্কারি সে কি সর্বনাশ।

নাঃগঞ্জ সিটি নির্বাচন মেয়র প্রার্থি ‘সেলিনা হায়াৎ আইভি’ এবং ঠিকাদার ‘আবু সুফিয়ান’ এর মাঝে গোপন অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে বলে নাঃগঞ্জ মহলে গুঞ্জন।

নারায়নগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনে দিনের বেলায় মেয়র হিসেবে ডা: সেলিনা হায়াত আইভী দায়িত্ব পালন করলেও রাতের মেয়র হিসেব নগর ভবনকে আড্ডা খানায় পরিনত করার অভিযোগে দীর্ঘদিন যাবৎ অভিযুক্ত ঠিকাদার আবু সুফিয়ান। রাত প্রায় ১০ টা পর্যন্ত নগর ভবনের প্রত্যেকটি কক্ষে সুফিয়ানের নেতৃত্বে অন্যান্য ঠিকাদাররা কর্মকর্তাদের সাথে খোশ গল্পে মেতে উঠে। সুফিয়ানের কোন অবৈধ কাজেই আইভীর নিষেধাজ্ঞা নেই, সুফিয়ানের কৃত কর্মে প্রশ্রয় দেয়ার কারনেই মেয়র আইভীকে দুর্নীতি তদন্ত কমিটির মুখোমুখি হতে হয়েছিল।

আবু সুফিয়ান কে ঠিকাদারী সংশ্লিষ্টতা মামলায় গ্রেফতার করা হলে আবু সুফিয়ান কে ছাড়িয়ে নিতে সারারাত সদর থানায় সেলিনা হায়াৎ আইভির অপেক্ষমান রাত্রিযাপন ইতিহাস আজো নাঃগঞ্জ বাসীর মনে সংশয় হয়ে আছে!

মেয়র আইভি নিজেই বলেছেন “আমি আইভি সিটি মেয়র সিটি কর্পোরেশনের কাজের জন্য,- ‘সুফিয়ান’ কে নয় গ্রেফতার করতে হলে আমাকে করুন”।

তাছাড়া অফিস টাইম বিকাল ৫টা পর্যন্ত হলেও রাত নয়টার পর নাসিক ভবনে মেয়র আইভি-সুফিয়ান এর একান্তভাবে সময় কাটানোর অভিযোগ রয়েছে। নারায়ণগঞ্জ নগরবাসীর মনে প্রশ্ন বিকেল ৪ টার পর নাঃগঞ্জ নগর ভবনে আবু সুফিয়ান রাতে মেয়র আইভির সাথে কার্যালয়ে কি কাজ করত ? টক অব দ্যা টাউনে পরিণত হয়েছে আইভী সুফিয়ানের এই সম্পর্কের প্রশ্নটা ।