আবার ধর্ষন আবার আওয়ামী যুবলীগ এবার টাঙ্গাইলের নাগরপুরে যুবলীগ নেতার অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণ

0

টাঙ্গাইলের নাগরপুরে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার উপজেলায় এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় সোমবার দুপুরে স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে নাগরপুর থানায় মামলা করেছেন। অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা সাজ্জাত হোসেন (৩২) জালাই গ্রামের শাহাদৎ হোসেনের ছেলে ও দপ্তিয়র ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক।

সূত্রে জানা যায়, উপজেলার দপ্তিয়র ইউনিয়নের জালাই গ্রামের শাহাদৎ হোসেনের ছেলে যুবলীগ নেতা সাজ্জাত হোসেন ওই মেয়েকে প্রায়ই উত্ত্যক্ত করত। শনিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে ওই ছাত্রীকে ডেকে বাড়ির বাইরে নিয়ে যায় সাজ্জাত। পরে তাকে বাঁশবাগানে নিয়ে হাত-পা বেঁধে ফেলে।

এ সময় ওই ছাত্রী চিৎকার করলে মুখ বেঁধে তাকে ধর্ষণ করে বাগানে ফেলে যায় ওই যুবলীগ নেতা। পরে স্কুলছাত্রীর স্বজনরা অনেক খোঁজাখুঁজির পর ওই বাঁশবাগান থেকে তাকে উদ্ধার করে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়। সোমবার নির্যাতিত স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে নাগরপুর থানায় মামলা করেছেন।

উপজেলার দপ্তিয়র ইউনিয়নের জালাই গ্রামের ওয়ার্ড ইউপি সদস্য রোশনাই সিকদার বলেন, ধর্ষণের বর্ণনা আমি ওই স্কুলছাত্রীর মুখ থেকে শুনেছি। বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টাও করা হয়েছে। ধর্ষক প্রভাবশালী হওয়ায় তা সম্ভব হয়নি।

নাগরপুর উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মীর আহম্মেদ শাহীন জানান, ঘটনার পরপরই দপ্তিয়র ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সাজ্জাত হোসেনকে কেন বহিষ্কার করা হবে না মর্মে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে নাগরপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাইন উদ্দিন বলেন, স্কুলছাত্রী ধর্ষণের একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজ টোয়েন্টিফোর