আবারও বাড়ছে বিদ্যুতের মূল্য বিএনপি’র প্রতিবাদ

0

জিসাফো ডেস্কঃ বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির উদ্যোগকে ‘গণবিরোধী’ আখ্যা দিয়ে এ থেকে সরে আসতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে বিএনপি।

দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের মূল্য কমলেও বাংলাদেশে মূল্য অতিশয় চড়া, তার উপর আবারও বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি করার প্রস্তুতি চলছে। এটি গণবিরোধী। মূলত নিজেদের পছন্দের লোক দিয়ে কুইক রেন্টাল প্রজেক্টের মাধ্যমে তাদেরকে লুটপাটের আরও বেশি সুযোগ করে দিতেই সরকার বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির উদ্যোগ নিচ্ছে। অথচ এই কুইক রেন্টাল হচ্ছে দেশের অর্থনীতির জন্য অভিশাপ।’

বুধবার (০৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘ক্ষমতাসীন সরকারের লুটপাট আর ভয়াবহ দুঃশাসনে দেশে যখন কোনও বিনিয়োগ নেই, সেই সময়ে আবারও বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি করা মানেই বিনিয়োগকারীদের নিরুৎসাহিত করা। আর এতে গোটা অর্থনীতি হুমকির মুখে পড়বে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি বিএনপির পক্ষ থেকে বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির উদ্যোগের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে সরকারকে জনবিরোধী এ উদ্যোগ থেকে সরে আসার আহ্বান জানাচ্ছি।’

রোহিঙ্গা ইস্যূতে দলটির এ মুখপাত্র বলেন, ‘মিয়ানমার রোহিঙ্গা নিধনে বিশ্বনেতৃবৃন্দ সোচ্চার ভূমিকা পালন করলেও বাংলাদেশ সরকার এখনও কোন উদ্যোগী ভূমিকা নেয়নি। এই মানবতাবিরোধী  নির্দয়তার বিরুদ্ধে বর্তমান সরকারের বিবেকহীন নীরবতা বিশ্বকে স্তম্ভিত করেছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে তাদের কুটনৈতিক দুর্বলতা ফুটে উঠেছে।’

ক্ষমতাসীন সরকারের নানান অনিয়ম ও দুর্নীতির চিত্র তুলে ধরে সাবেক এই ছাত্র নেতা বলেন, ‘পবিত্র ঈদুল আজহার উৎসবের মাঝেও শাসক দল আওয়ামী লীগ ও তাদের পেটোয়া আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সন্ত্রাসী তান্ডব থামছে না। স্থায়ী আওয়ামী লীগ নেতারা নির্যাতনের তান্ডব চালালে পুলিশ ঘটনা স্থলে উপস্থিত থেকেও নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করেছে। তাই বিএনপি এসব ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে দায়ী ব্যক্তিদের শাস্তি দাবি করছে এবং বিএনপির নেতাকর্মীদের মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানাচ্ছে।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা আতাউর রহমান ঢালী, হাবিব উন নবী খান সোহেল, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, আব্দুস সালাম, এমএ মালেক, কাজী আবুল বাশার, খন্দকার আবু আশফাক, আবু নাসের মুহাম্মদ রহমত উল্লাহ প্রমুখ।