আট বছরের এক শিশুকে পালাক্রমে ধর্ষণ

0

জিসাফো ডেস্কঃ শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার জপসা ইউনিয়নের হাওলাদার কান্দি এলাকায় আট বছরের এক শিশু পালাক্রমে ধর্ষণের শিকার হয়েছে। বর্তমানে শিশুটি গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। শনিবার বিকেলে জপসা হাওলাদার কান্দি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জপসা ইউনিয়নের হাওলাদার কান্দি গ্রামের নুরুজ্জামান হাওলাদারের ছেলে রাকিব হাওলাদার (১৫) ও সদর উপজেলার চিকন্দী ইউনিয়নের টাউন চিকন্দী গ্রামের খোকন মাদবরের ছেলে কবির মাদবর (১৪) শিশুটিকে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয়, পারিবারিক ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শনিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে জপসার হাওলাদার কান্দি এলাকায় বাড়ির পাশে অন্য শিশুদের সঙ্গে খেলা শেষে ঘরে ফিরছিল শিশুটি। পথে একই বাড়ির রাকিব হাওলাদার ও নানা বাড়িতে বেড়াতে আসা কবির মাদবর তার মুখ চেপে জোর করে নুরুজ্জামান হাওলাদারের ঘরে নিয়ে যায়। এরপর পালাক্রমে তাকে ধর্ষণ করে।

এই ঘটনার পর শিশুটি রক্তাক্ত অবস্থায় ঘরে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে। গুরুত্বর অসুস্থ হওয়ায় প্রথমে তাকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে শিশুটির রক্তপাত বন্ধ না হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন।

শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের গাইনি বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডা. আম্বিয়া আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, শিশুটির রক্তপাত বন্ধ না হওয়ায় ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে।

জেলা জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান অ্যাড. রওশন আরা বেগম বলেন, প্রয়োজন হলে আমাদের সংস্থা থেকে শিশুটিকে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে। সেইসঙ্গে দ্রুত ধর্ষকদের গ্রেফতার করে সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানান তিনি।

এ ব্যাপারে নড়িয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকরাম আলী মিয়া বলেন, শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে শিশুটি ভর্তি হওয়ার পর আমরা ঘটনাটি জানতে পারি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এখনো কেউ অভিযোগ করতে আসেনি। তবে পুলিশের প্রক্রিয়ায় আসামিদেরকে ধরার জন্য অভিযান চালিয়ে যাচ্ছি।