আওয়ামী লীগ পুরো দেশটিকে জেলখানায় পরিণত করেছে;আব্দুস সালাম

0

জিসাফো ডেস্কঃ আন্দোলন ছাড়া শেখ হাসিনাকে সরানো যাবেনা বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম।

তিনি বলেন, ‘আন্দোলন ছাড়া শেখ হাসিনাকে সরানো যাবে না। আর আন্দোলন ছাড়া শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনে গিয়েও কোনো লাভ হবে না।’

সোমবার (২০ নভেম্বর) বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে স্কাউট মার্কেটের দ্বিতীয় তলার সেমিনারে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫৩তম জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটা ও আলোচনা সভার আয়োজন করে ‘আমারা বাংলাদেশি, জিয়া নাগরিক ফোরাম’, দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলন, জাতীয়তাবাদী বন্ধু দলসহ কয়েকটি সংগঠন।

তারেক রহমান সরকারের জন্য একটা আতঙ্ক উল্লেখ করে আব্দুস সালাম বলেন, ‘তিনি (তারেক রহমান) সাত সাগর তের নদী দূরে থেকেও বাংলাদেশের মানুষকে আলো দিয়ে যাচ্ছেন। বাংলাদেশের মানুষ তারেক রহমানের জন্য উদগ্রীব হয়ে আছে, কবে তিনি দেশে ফিরে আসবেন। আর সেজন্য দেশে অগণতান্ত্রিক পরিবেশ তৈরি করে তাকে দেশে ফিরে আনার ব্যবস্থা করতে হবে।’

সভাপতির বক্তব্যে বিএনপির গণ শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ও শিক্ষক নেতা অধ্যক্ষ মো. সেলিম ভূইয়া বলেন, ‘তারেক রহমানের দিকে তাকিয়ে আছে সমগ্র জাতি।’

আওয়ামী লীগ দেশ চালাতে সম্পূর্ণ ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘গুম, খুন, গুলি করে মানুষ হত্যা করে পুরো দেশটিকে জেলখানায় পরিণত করেছে। আজ মানুষের জীবনের কোনো নিরাপত্তা নেই। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনির অত্যাচার চরম পর্যায়ে উপনীত হয়েছে। দুদক দিয়ে ব্যবসায়ী ও রাজনীতিবিদদের হয়রানি করা হচ্ছে। দেশের এই অবস্থা থেকে সকলকে রক্ষার জন্য তারেক রহমানের খুবই প্রয়োজন।’

তারেক রহমানের জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে সরকার তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের মামলা দিচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিবসহ তথ্য বিষয়ক সম্পাদক কাদের গনি চৌধুরী, সাবেক এমপি কামরুদ্দিন এহিয়া খান মজলিশ সরোয়ার, জিনাফের সভাপতি মিয়া মোহাম্মদ আনোয়ার, বাংলাদেশ ন্যাপের মহাসচিব এম গোলাম মোস্তফা ভূইয়া, এনডিপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মঞ্জুর হোসেন ইসা, কৃষক দলের কেন্দ্রীয় নেতা মাইনুল ইসলাম, শিক্ষক নেতা জাকির হোসেন, অধ্যক্ষ সেলিম মিয়া, দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন, বন্ধুদলের সভাপতি শরিফ মোস্তফা জামান লিটু, হানিফ মজুমদার, ঘুরে দাঁড়াও বাংলাদেশের সভাপতি কাদের সিদ্দিকি, গণ সংস্কৃতি দলের সভাপতি এস আল মামুন, সাবেক ছাত্র নেতা রবিউল ইসলাম রবি, কর্মজীবী দলের সভাপতি আলতাফ হোসেন প্রমুখ।