আওয়ামী লীগ জনগণকে ভয় পায় বলে সমাবেশের অনুমতি দেয়নি

0

জিসাফো ডেস্কঃ জিয়াউর রহমানকে মানলে আওয়ামী লীগের রাজনীতি থাকে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, জিয়াউর রহমানকে আজকে আওয়ামী লীগ মানতে চায় না। কারণ, জিয়াউর রহমানকে মানলে তাদের রাজনীতি থাকে না। আপনারা পরাধীনতার রাজনীতি করেছেন, শৃঙ্খলের রাজনীতি করেছেন, আপনারা শৃঙ্খলে আবদ্ধ হয়ে থাকতে ভালোবাসেন। ‘জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস’ উপলক্ষে গতকাল সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।

মির্জা আলমগীর বলেন, আওয়ামী লীগ জনগণকে ভয় পায় বলেই সমাবেশের অনুমতি দেয়নি। আপনারা সমাবেশের অনুমতি দেন না, কারণ ৭ই নভেম্বর পালন করলে আজকে লাখ লাখ মানুষ আবার জিয়াউর রহমানের আদর্শে অনুপ্রাণিত হবে। সমস্ত শৃঙ্খল ছিঁড়ে তারা গণতন্ত্রকে উন্মুক্ত করবে। আমরা বলি ভয় পান কেন? গণতন্ত্রের কথা বলেন, গণতন্ত্রের মূল কথা হলো সবার সমান অধিকার দেবেন। আমাদেরকে সভা করতে দেন, তা না হলে প্রমাণ হবে দেশে গণতন্ত্র নেই। এ অবস্থায় অতীতের মতো গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার আন্দোলনে আইনজীবীদের শামিল হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, গণতন্ত্রের আন্দোলন করতে গিয়ে আমাদের অসংখ্য কর্মী মামলা-মোকাদ্দমায় জর্জরিত হয়ে গেছেন। আপনারা আমাদের পাশে থেকে সহযোগিতা করছেন, আমাদের মামলা পরিচালনা করছেন। সেজন্য দলের পক্ষ থেকে আপনাদের ধন্যবাদ।

সেই সঙ্গে আপনাদের আকুল আবেদন জানাই, বাংলাদেশে সবসময় আইনজীবীরাই পরিবর্তন ঘটিয়েছেন। গণতান্ত্রিক আন্দোলনের নেতৃত্ব দিয়েছেন, আগামী দিনেও আন্দোলনে আপনারা নেতৃত্ব দেবেন। সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি জয়নুল আবেদীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের মূল মঞ্চে ছিলেন সাবেক স্পিকার ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার আমিনুল হক, অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুবউদ্দিন খোকন, সাবেক সম্পাদক ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বাদল, অ্যাডভোকেট আহমেদ আজম খান ও অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া।