”আওয়ামীলীগের ২০তম কাউন্সিল’, ‘জুনায়েদ মুজিব সিদ্দিক ববি’ এবং ‘সিআরআই’ বিতর্ক”

0

আওয়ামীলীগের গবেষনা উইং খ্যাত- ‘সেন্টার ফর রিসার্চ এন্ড ইনফরমেশন-সিআরআই’ যার ‘চেয়ারম্যান- ‘সজীব ওয়াজেদ জয়’ এবং ‘হেড অফ স্ট্রাটেজি অ্যান্ড প্রোগ্রামার, ট্রাষ্টি – ‘রেদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি’।

‘সিআরআই’ এর অন্যতম প্রধান লক্ষ্য তরুন সমাজ কে রাজনীতি তে আগ্রহী করে তোলা এবং রাজনীতিবিদ দের সাথে তরুন সমাজের সেতু বন্ধন গড়ে তোলা।

আওয়ামীলীগের ২০তম কাউন্সিলে ‘রেদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি’ কাউন্সিলর হয় এবং নির্দিষ্ট সময়ের আগে কাউন্সিলর পদ এবং কাউন্সিল প্রত্যাখান করেন।
শেখ রেহেনা এবং রেদওয়ান ববির ২০তম কাউন্সিল প্রত্যাখানের পেছনে নানা কারন এবং তথ্য যুক্তির আলোকে শাক দিয়ে মাছ ঢাকা নীতিতে বিতর্ক এড়িয়ে চলে আওয়ামীলীগ।

কিন্তু ‘সিআরআই’ এর গতিশীল এ্যাকটিভিটিতে হঠাৎ ধীরতা লক্ষ্যনীয়। এবং এই ধীরতা বা থমকে যাওয়া অবস্থান নিয়ে ‘সিআরআই’ মহলে জন্ম নিয়েছে নানা প্রশ্ন এবং যে প্রশ্নে অদৃশ্যভাবে প্রশ্নবিদ্ধ করা হচ্ছে ‘জুনায়েদ মুজিব সিদ্দিক ববি’র কাউন্সিল প্রত্যাখান এবং এর প্রভাব ‘সিআরআই’ কার্যপরিধি মাঝে বিদ্যমান ঘটা।

আওয়ামীলীগের গবেষনা উইং হিসেবে ‘সিআরএই’ এর অবদান প্রশংসিত। আওয়ামী রাজনৈতিক ইতিহাস প্রচারনা, আওয়ামী ২০তম কাউন্সিলে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার ঘটিয়ে প্রচার, বিস্তার এবং আধুনিকতা যোগ করা ‘সিআরআই’ এর অন্যতম ভুমিকা এবং বহুল প্রশংসিত অধ্যায়ে ছিল।’গ্রাফিক নভেল- মুজিব’ বই এর প্রকাশনা এবং শিক্ষার্থিদের হাতে হাতে তা পৌছে দেয়া। তাছাড়া ‘ইয়াং বালা’ সেক্রেটারিয়েটর এর ভুমিকায় রয়েছে ‘সিআরআই’ এর অবদান।

তরুন প্রজন্ম কে রাজনৈতিক অঙ্গনে প্রতিষ্ঠিত করার লক্ষ্য নিয়ে ‘সিআরআই’ দীর্ঘদিন যাবৎ কাজ করে যাচ্ছে। অথচ শেখ মুজিবের দৌহিত্র এবং ‘সিআরআই’ ‘হেড অফ স্ট্রাটেজি অ্যান্ড প্রোগ্রাম এবং ট্রাষ্টি’ পরিচয়খ্যাত- ‘জুনায়েদ মুজিব সিদ্দিক ববি’ কে রাজনীতি তে প্রতিষ্ঠিত করার ব্যার্থতা কাধে নিয়ে বেশ জটিলতা এবং ধীরতায় চলছে ‘সিআরআই’ এর বর্তমান সময়…

লেখক

জগৎ শেঠ