অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন জাতির প্রত্যাশা হলেও আওয়ামী লীগের জন্য তা অভিশাপ

0

জিসাফো ডেস্কঃস্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, এক মাস গবেষণা ও পর্যবেক্ষণ করার পর নির্বাচন কমিশন পূর্ণগঠন ও শক্তিশালীকরনে খালেদা জিয়া ৪৪ মিনিটে যে ১৩ দফা সুপারিশমালা জাতির সামনে উপস্থাপন করেছেন, ওবায়দুল কাদের তা কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই প্রত্যাখ্যান করেছেন। এতে বোঝা যায় আসলে অন্তঃসারশূন্য কে?

জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ‘নির্বাচন কমিশন পুনগর্ঠনে সকল রাজনৈতিক দলের মতামতের প্রয়োজন’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। সভার আয়োজন করে ঢাকা মহানগর জিয়া পরিষদ।

খালেদা জিয়ার সুপারিশ নাকচ করা ছাড়া আওয়ামী লীগের কোনো উপায় নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন জাতির প্রত্যাশা হলেও আওয়ামী লীগের জন্য তা অভিশাপ। দেশের কতগুলো মৌলিক বিষয় আছে, সে ব্যাপারে আমরা এখনো ঐক্যমত্যে আসতে পারিনি। প্রতিটি জিনিসকে যার যার মত করে দেখি। তবে একটি কথা ঠিক সরকার যত লিবারেল হবে গণতন্ত্র তত শক্তিশালী হবে।’

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন সম্পর্কে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘আওয়ামী লীগ প্রার্থী আইভী বলেছেন নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েনের প্রয়োজন নেই, তিনি ঠিক বলেছেন! কারণ নির্বাচনে নৌকা উঠলে আর কোনো বাহিনীর-ই দরকার নেই।’

তিনি আরো বলেন, ‘বর্তমান সরকার গুম, খুন, লুটপাট বোঝে কিন্তু তাদের দায়িত্বটা বোঝে না। জনগণের ভোটে তারা নির্বাচিত নয় বলেই তারা এসব বোঝে না। জনগণের কাছে তাদের জবাবদিহিতা নেই। জবাবদিহিতা করবে প্রতিবেশী দেশের কাছে যাদের দয়ায় তারা ক্ষমতায় আছে এবং থাকবে।’

সাংবাদিকদের সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘সাংবাদিকরা শুধু বিএনপির বিরুদ্ধে লেখার ক্ষেত্রে স্বাধীনতা পায়, আমাদের বিরুদ্ধে লিখতে পারে। কিন্তু আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে কোনো কিছুই লিখতে পারে না। তারপরও বলব তারা কিছুটা স্বাধীনতা তো পেল।’

জিয়া পরিষদের সভাপতি প্রফেসর ড. মুহাম্মাদ শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও জিয়া পরিষদের চেয়ারম্যান কবির মুরাদ।