অপরাধীদেরকে পার করে দেয়ার চেষ্টা করছে কি সরকার? বিএনপি

0

ঢাকা : বিএনপির মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ প্রশ্ন তুলেন, ব্যাংকের অর্থ লুটপাটকারী অপরাধীদেরকে পার করে দেয়ার চেষ্টা করছে কি সরকার?

রিজভী আহমেদ প্রশ্ন করে বলেন, ক্ষমতাসীন গোষ্ঠির উচ্চ পর্যায়ের ব্যাক্তিবর্গরা যে জড়িত তা জাতির কাছে একেবারেই সুস্পষ্ট। ঘটনা ঘটার ৪০ দিন পর অজ্ঞাতনামা ব্যাক্তিদের আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এটি অত্যান্ত রহস্য জনক। তাহলে কি অপরাধীদেরকে পার করে দেয়ার চেষ্টা করছে কি সরকার?

তিনি জানান, বাংলাদেশ ব্যাংকের ৮০০ কোটি টাকা বেলকি বাজির মত বাতাসে মিলিয়ে যাওয়ার তম ঘটনায় দেশ- বিদেশে আলোরণ সৃষ্টি করতে সেই ঠিক মুহুর্তে তিতাস গ্যাসের ৩ হাজার ১০০ কোটি টাকা লোপাটের মত চাঞ্চল্যকর ঘটনা পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে। গর্ভরনরের পদত্যাগ ও দুজন ডেপুটি গর্ভরনরের অপসারনের মধ্যে দিয়ে নেফথ্যর গডফাদারদের লুকিয়ে রাখা যাবে না বলে হুশিয়ার করেন রিজভী।

বিএনপির এই নেতা বলেন, সারাদেশ এখন লুটপাটের স্বর্গরাজ্যে পরিনত হয়েছে। অবস্থা দৃষ্টে মনে হচ্ছে ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার আগে তার জনগণের টাকা আত্মসাত করে রাখছে যাতে পালানোর মত অবস্থা সৃষ্টি হলে এই টাকা গুলো কাজে লাগবে। লুটপাটকারীদের দুশাসনের কবল থেকে দেশ মুক্ত না হলে অচিরেই দুভিক্ষের কবলে পড়বে দেশ। এই ভয়াবহ নৈরাজ্যময় পরিস্থিতি থেকে উত্তরনের একমাত্র উপায় ভোটার বিহীন সরকারের জোর করে আক্রে রাখা ক্ষমতা ত্যাগ করে বিদায় নেয়া।

রিজভী আহমেদ অভিযোগ করে বলেছেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে অর্থ চুরির ঘটনায় জড়িতদের সরকার আড়াল করার চেষ্টা করছে।বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে অর্থ চুরির ঘটনাকে ‘ডিজিটাল চুরি’ আখ্যায়িত করে তিনি বলেন, এই চুরি বিশ্বকে হতবাক করেছে।

আজ বুধবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

রিজভী বলেন, ঘটনার ৪০ দিন পর থানায় মামলা হয়েছে। এই মামলা করা হয়েছে ঘটনার মূল হোতাদের আড়াল করার জন্য। তবে গডফাদারদের নাম জাতি একদিন জানতে পারবে বলে মন্তব্য করেন বিএনপির দপ্তরের দায়িত্বে থাকা এই নেতা।

রিজভী জানান, ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনেই বিএনপির কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের একটি অংশ কাউন্সিলের জন্য বিএনপির পক্ষ থেকে চাওয়া হয়েছে। তবে এখনো অনুমতি মিলেনি। তারা অনুমতির অপেক্ষায় আছেন।

বিএনপির এই নেতা বলেন, ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে কাউন্সিল করার সব আয়োজন সম্পন্ন হয়েছে। তাই যথাসময়ে সেখানেই কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, সহ-দপ্তর সম্পাদক আবদুল লতিফ জনি, স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম-সম্পাদক অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।